সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে কর আদায়ের পক্ষে এনবিআরের নতুন চেয়ারম্যান

শেয়ার বিজ : জোর করে নয়, সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে ন্যায্যতার ভিত্তিতেই কর আহরণ করতে চান জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূইয়া।
তিনি বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আমাদের একটা হৃদ্যতাপূর্ণ সম্পর্ক থাকতে হবে। আমরা তাদের কাছ থেকে জোর করে কিছু আদায় করতে চাই-এমন দৃষ্টিভঙ্গি থাকবে না। ব্যবসায়ীরা কখনো প্রতিপক্ষ হবে না। ন্যায্যাভাবে সরকারের যেটা পাওনা, সেটা আদায় করে নেবো।’
বৃহস্পতিবার এনবিআরে যোগদান করে রাজস্ব প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রথম মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর সেগুনবাগিচায় রাজস্ব ভবনের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় এনবিআরের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
রাজস্ব কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য এনবিআরের নতুন এই চেয়ারম্যান আরো বলেন, এনবিআর হবে ব্যবসাবান্ধব। দেশে যদি ব্যবসা ভালো চলে তাহলে আপনা-আপনিই রাজস্ব আয় বাড়বে। বেশি মানুষকে করজালের আওয়াত আনার চলমান প্রচেস্টা আরো জোরদার করা হবে বলে তিনি জানান। দেশের যেসব ধনী ব্যক্তিরা কর দেন না তাদের খুঁজে বের করার নির্দেশ দেন তিনি।
মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আমরা অনেক বড় বড় ব্যবসায়ীর নাম শুনি, তাদের প্রভাব-প্রতিপত্তি জানি। কিন্তু কর দেওয়ার ক্ষেত্রে তারা পেছনে থাকেন। এ কারণে বড় বড় আলোচিত এসব ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলতে হবে। আমরা তাদের যথাযথ সম্মান দিয়েই কর আহরণ করতে চাই ।’
বগুড়ায় ‘কর বাহাদুর’ সম্মান পাওয়া তার এক বন্ধুর উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, বিভিন্ন জেলায় যারা কর বাহাদুর হয়েছেন, সেসব জেলায় তাদের চেয়েও বড় বড় ব্যবসায়ী আছেন। কিন্তু কর দেওয়ার তালিকাতে তাদের নাম খুঁজে পাওয়া যায় না। একারণে তাদের খুঁজে বের করতে হবে।
এনবিআরের সততা নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করে মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘রাজস্ব কর্মকর্তা-আমরা যদি সৎ থাকি, দেশেরও কাজ হবে, আমার নিজেরও কাজ হবে, আমার পরিবারের জন্য সেটা মঙ্গলজনক হবে। দেশের স্বার্থে দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেওয়া যাবে না।’
রাজস্ব প্রদানে করদাতারা যেন কোনভাবেই হয়রানির শিকার না হন, সেদিকে কঠোরভাবে নজর রাখতে বলেন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের।
গতকাল এনবিআরের চেয়ারম্যান ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব হিসেবে নিয়োগ পান শিল্প মন্ত্রণালয়ের সাবেক সিনিয়র সচিব মোশাররফ হোসেন ভূইয়া। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সদ্য নিয়োগ পাওয়া মুখ্য সচিবে মো. নজিবুর রহমানের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন তিনি। বাসস