কয়েক ঘণ্টা পরই পর্দা উঠবে স্বপ্নের বিশ্বকাপের

শেয়ার বিজ ডেস্ক : দীর্ঘ চার বছরের অপেক্ষার পালা শেষ। কয়েক ঘণ্টা পরই পর্দা উঠবে স্বপ্নের বিশ্বকাপের। টুর্নামেন্টের ২১তম আসরের সোনালি ট্রফিটি দখলের মিশন শুরু হবে আজ ১৪ জুন, বৃহস্পতিবার।

এবারের আয়োজক রাশিয়া। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মতো বিশাল এক টুর্নামেন্ট আয়োজনের চ্যালেঞ্জ নিয়েছে ভ্লাদিমির পুতিনের দেশ। এর আগের ২০ বিশ্বকাপের ১০টি হয়েছে ইউরোপে। সাতবার লাতিন আমেরিকায়। আর উত্তর আমেরিকা, আফ্রিকা ও এশিয়ায় একবার করে অনুষ্ঠিত হয়েছে ফুটবল বিশ্বকাপ।

২০১৮ বিশ্বকাপের সব প্রস্তুতি প্রায় শেষ। ইতোমধ্যেই সব দল ও তাদের সমর্থকরা পৌছে গেছে রাশিয়ায়। দেশটির রাজধানী মস্কোও সেজেছে নতুন সাজে।

বিশ্বকাপ শুরুর আনন্দে ভক্তরা পোস্টার, প্লেকার্ড ও রং-বেরঙের ফেস্টুন, ছবি দিয়ে ভরিয়ে দিয়েছে পুরো শহর। তাদের নিরাপত্তাতে রয়েছে কড়া নজরদারি।

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে অনুষ্ঠিত হবে ২০১৮ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচটি। লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় সৌদি আরবের মুখোমুখি হবে স্বাগতিক রাশিয়া। প্রথম ম্যাচকে সামনে রেখে ভক্তদের মাঝেও ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হবে ম্যাচ শুরুর আধা ঘণ্টা আগে। বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় সংগীত তারকা রবি উইলিয়ামস তার সুরের জাদুতে মুগ্ধ করবেন কোটি কোটি দর্শককে। তার সাথে যোগ দেবেন রুশ শিল্পী আইদা গারিফুলিনা। ফুটবলারদের প্রতিনিধি হয়ে উপস্থিত থাকছেন ব্রাজিলের ২০০২ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক রোনালদো।

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানসহ ৬৪টি ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করবে সনি টেন টু। বাংলাদেশি চ্যানেলগুলোর মধ্যে বিটিভি, মাছরাঙ্গা ও নাগরিক টিভিতে দেখা যাবে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

রাশিয়া বিশ্বকাপে ফেবারিটের তকমাটা গায়ে মাখানো ব্রাজিলের। বাছাইপর্বে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স উপহার দিয়েছে তিতের দল। শুধু তাই নয়, বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচগুলোতেও নিজেদের শ্রেষ্ঠত্বের জানান দিয়েছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানি শিরোপা ধরে রাখতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। জোয়াকিম লোর অধীনে নিজেদের সেরাটা ঢেলে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়েই মিশন শুরু করতে চায় তারা। ইউরো-বিশ্বকাপ-ইউরোজয়ী স্পেনও এবার অতীত ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে দারুণভাবে রাশিয়ায় পৌঁছেছে।

দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনাও থাকছে ফেবারিটের তালিকায়। মেসির মতো ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ওপরও বিশ্বকাপ জয়ের আস্থা রাখছে পর্তুগালের ফুটবলপ্রেমীরা। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতো দল গড়েছে ফ্রান্স-ইংল্যান্ডও। মোহাম্মদ সালাহর মিসরকে নিয়েও ভক্ত-অনুরাগীদের এবার বাড়তি প্রত্যাশা।

রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে ম্যাচের মোড় ঘুড়িয়ে দেওয়ার মতো রয়েছেন অনেক ফুটবলার। যাদের ওপর এবার ভক্ত-অনুরাগীদের প্রত্যাশা একটু বেশি, তারা হলেন লিওনেল মেসি-সার্জিও অ্যাগুয়েরো, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, নেইমার, লুইস সুয়ারেজ, থমাস মুলার-মেসুত ওজিল, হ্যারি কেন, পল পগবা, মোহাম্মদ সালাহ ও ইস্কোর মতো তারকারা।