প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

অনলাইনে প্রসার হোক ব্যবসা-বাণিজ্যের

দিন দিন অনলাইনে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়ছে। শিল্পোন্নত দেশে এর জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। বাংলাদেশেও বিশেষত তরুণদের কাছে এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে। এর পেছনে কারণও রয়েছে। অনলাইনে বেচাকেনায় ঝামেলা কম ম্যানুয়ালের চেয়ে। সাধারণত পণ্য কেনার জন্য ক্রেতা দোকান বা শোরুমে যান। দোকান বা শোরুমে যেতে রাজধানী বা শহরগুলোতে পড়তে হয় যানজটে। অনেক সময় যানজটের কারণে ঘণ্টার পর ঘণ্টা নষ্ট হয়। অনেক সময় দুর্ঘটনাও ঘটে। আর পণ্য বাছাইয়ে পড়তে হয় ঝামেলায়। অনলাইনে পণ্য কিনতে এ ধরনের সমস্যা নেই। ঘরে বসেই পছন্দের পণ্যটি কেনা যায়। এতে ওই পণ্য সম্পর্কে আগে থেকেই জানা যায়, সে অনুযায়ী অর্ডার দিলেই ঘরে চলে আসে। এজন্য অতিরিক্ত সময় ব্যয়ের প্রয়োজন হয় না। এতে ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়েরই সুবিধা।

বিশ্বের অন্যতম অনলাইন কেনাবেচার প্রতিষ্ঠান চীনের আলিবাবা ডটকম বা যুক্তরাষ্ট্রের আমাজান ডটকম সারা বিশ্বে ব্যবসা করছে। এর পরিধি বাড়ছে ক্রমাগত। বাংলাদেশেও বিক্রয় বা সেলবাজার ডটকমের মতো প্রতিষ্ঠান এ ধরনের ব্যবসা করছে। অনেক ছোট প্রতিষ্ঠানও অনলাইনে করছে কেনাবেচা। বিশেষ করে করপোরেট প্রতিষ্ঠানগুলো এ ধরনের ব্যবসার দিকে ঝুঁকছে। তারা সুবিধাও করছে বলে জানা যায়। অনলাইনে ব্যবসা করতে পুঁজিও কম লাগে। এ ধরনের ব্যবসার জন্য শোরুম বা আলাদা স্পেস প্রয়োজন হয় না। গ্রামে বসেও অনেকে এ ধরনের ব্যবসা করতে পারেন। তরুণরা অনলাইনে ব্যবসার দিকে ঝুঁকছেন বেশি। অনেকে চাকরির পেছনে না ছুটে এ ধরনের ব্যবসায় আগ্রহী এবং অন্যদেরও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করছেন। তাছাড়া এ ধরনের ব্যবসায় ঝুঁকি নেই বললেই চলে।

অনলাইনে ব্যবসার জন্য প্রযুক্তি প্রসারের বিকল্প নেই। প্রযুক্তির উৎকর্ষের সঙ্গে এ ধরনের ব্যবসার প্রসার হবে। এজন্য প্রযুক্তিপণ্যের সহজলভ্যতার ব্যবস্থা করতে হবে। কম মূল্যে এর সরবরাহের ওপর নজর দিতে পারেন সংশ্লিষ্টরা। এ ব্যবসার অপরিহার্য শর্ত ইন্টারনেটের ব্যবহার। দ্রুতগতির ইন্টারনেট এবং তা কম খরচে সবার কাছে পৌঁছাতে পারলে এ ব্যবসার প্রসার হবে। বাংলাদেশের অনেক ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান বিদেশের অনেক অনলাইন প্রতিষ্ঠান থেকে পণ্য কিনে থাকে। যদি দেশি প্রতিষ্ঠানগুলোকে আন্তর্জাতিক মানের করে তোলা যায়, তাহলে তারাই এক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে পারবে। এ ধরনের ব্যবসার প্রসারে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা যেতে পারে গ্রাহক ও উদ্যোক্তাদের। এ ব্যবসায় আয়ও উল্লেখযোগ্য। এ ধরনের ব্যবসায় সংশ্লিষ্টরা আরও এগিয়ে আসবেন এটাই প্রত্যাশা।