স্পোর্টস

অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ টানা জয়ে সেমির পথে যুবারা

ক্রীড়া ডেস্ক: আগের ম্যাচে আরব আমিরাতকে উড়িয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের শুরুটা দারুণ করেছিল বাংলাদেশ। গতকাল এ টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আকবার আলী ও তৌহিদ হৃদয়ের ব্যাটে ভর করে সহজেই নেপালকে হারিয়ে দেয় জুনিয়র টাইগাররা। টানা এ জয়ে এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের এ লড়াইয়ের শেষ চারের পথে লাল-সবুজ প্রতিনিধিরা।
গতকাল শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নেপালকে ৬ উইকেটে হারিয়ে দেয় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। এর আগে টস হেরে আগে বল হাতে প্রতিপক্ষের পাওয়ান সরাফ সারাফের ঝড় থামিয়ে ২৬১ রানে আটকে দেয় টাইগার যুবারা। রান তাড়ায় শুরুটা ভালো না হলেও পরে মাহমুদুল হাসান জনি (৪০) ও তৌহিদ হƒদয় (৬০) লাল-সবুজদের কক্ষপথে ফেরান। এ দুই তারকার বিদায়ের পর এক প্রান্ত আগলে জয়ের বাকি কাজটা সারেন অধিনায়ক আকবার আলী (৯৮*) ৪ বল হাতে রেখে। তাকে দারুণ সঙ্গ দেন সামিম হোসাইন (৪২*)।
কলম্বোর পি সারা ওভালে গতকাল রান তাড়ার শুরুতেই দুই ওপেনার তানজিদ হাসান ও অনিক সরকার সেতুকে হারায় বাংলাদেশ। পরে অবশ্য লাল-সবুজদের হাল ধরেন মাহমুদুল হাসান ও তৌহিদ হƒদয়। তৃতীয় উইকেটে তারা গড়েন ৭৯ রানের জুটি। এরপর মাহমুদুল ফিরলে অধিনায়ক আকবারের সঙ্গে ৩৪ রানের ছোট কিন্তু কার্যকরী জুটি গড়েন তৌহিদ। এর মধ্যে এ ডানহাতি পূর্ণ করেন হাফ সেঞ্চুরি। কিন্তু নিজের ইনিংস বড় করতে পারেননি। ফেরেন ৬০ রান করে। তবে দলের পথ হারাতে দেননি আকবার। পঞ্চম উইকেটে শামিমকে নিয়ে ১৩২ রানের দারুণ জুটি গড়ে জুনিয়র টাইগারদের জিতিয়ে ফেরেন। আকবার ৮২ বলে ১৪ চারে ৯৮ রানে অপরাজিত ছিলেন। এদিকে ৪৫ বলে ৪টি চারে ৪২ রানে অপরাজিত থাকেন শামিম।
এর আগে টস জিতে বল হাতে শুরুটা ভালো ছিল না বাংলাদেশের। তবে প্রতিপক্ষকে দ্রুত রান তুলতে দেননি রাকিবুল-মৃত্যুঞ্জয়রা। এক পর্যায়ে অবশ্য তারা সেটা ধরে রাখতে পারেননি। এ সুযোগে নেপাল ওপেনার পাওয়ান সরাফে ঝড় তোলেন। শেষ পর্যন্ত ১০৯ বলে ৮ চার ও এক ছয়ে তাকে থামান মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। শেষদিকে সন্দ্বীপ ঝোরার ৩৭ বলে ৩ চার ও ৩ ছয়ে ৫৬ রানের বিস্ফোরক ইনিংসে ভর করে ৮ উইকেটে ২৮১ রান করে নেপাল।
বাংলাদেশের হয়ে তানজিম হাসান সাকিব ৫১ রানে নেন দুটি উইকেট। এদিকে শাহিন আলমও ৫৮ রানে পকেটে পোরেন দুটি উইকেট। আর মৃত্যুঞ্জয়, রাকিবুল, মিনহাজুর ও তৌহিদ নেন একটি করে উইকেট।

 

সর্বশেষ..