Print Date & Time : 24 January 2021 Sunday 1:41 am

অপুষ্টিতে ইয়েমেনে লাখো শিশু মৃত্যুঝুঁকিতে: জাতিসংঘ

প্রকাশ: October 29, 2020 সময়- 12:54 am

শেয়ার বিজ ডেস্ক : যুদ্ধবিধ্বস্ত দক্ষিণ ইয়েমেনের শিশুদের পুষ্টিহীনতা চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। কয়েকটি অঞ্চলে প্রায় এক লাখ শিশু অনাহারে চরম অপুষ্টিতে ভুগে মরতে বসেছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটি সতর্ক করে বলেছে, ক্রমেই ভয়ানক খাদ্য সংকটের দিকে ধাবিত হচ্ছে ইয়েমেন।

প্রতিবেদনে এ পুষ্টিহীনতার জন্য মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব, আর্থিক মন্দা, বন্যা, দেশটিতে চলমান সংঘাত এবং চলতি বছর তাৎপর্যপূর্ণভাবে মানবিক সহায়তা কমে যাওয়াকে দায়ী করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির বাসিন্দারা বছরের পর বছর ধরে মারাত্মক খাদ্য সংকটে রয়েছে। ফলে সেখানকার বাসিন্দা বিশেষ করে শিশুরা চরম অপুষ্টিতে ভুগছে। তার ওপর এ বছর অবস্থা এতটাই খারাপ হয়েছে, যা অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে।

ইয়েমেনে জাতিসংঘের মানবিকবিষয়ক সমন্বয়ক লিসা গ্রান্ডে বলেন, ‘গত জুলাই থেকে আমরা বারবার ইয়েমেনের বিষয়ে সতর্ক করেছি। বলছি, মারাত্মক খাদ্য সংকটের কারণে দেশটি বিপর্যয়ের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে।’

এখনই এ যুদ্ধ শেষ না হলে আমরা ওই পরিস্থিতির খুব কাছে পৌঁছে গেছি যেখান থেকে ফেরত আসা আর কখনওই সম্ভব হবে না। ইয়েমেন শিশুদের পুরো একটি প্রজন্ম হারিয়ে ফেলার ঝুঁকিতে পড়ে গেছে।

দক্ষিণ ইয়েমেনের শিশুদের অপুষ্টিবিষয়ক এ জরিপের তথ্য বলছে, ২০২০ সালে এসে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের পুষ্টিহীনতার সংখ্যা ১০ শতাংশে ঠেকেছে, যা সংখ্যায় অর্ধ মিলিয়ন বা পাঁচ লাখেরও বেশি।

জাতিসংঘের প্রতিবেদন বলছে, ইয়েমেনের ১৫ দশমিক পাঁচ শতাংশ শিশু তীব্র অপুষ্টিতে ভুগছে। শুধু তাই নয়, দেশটির এক মিলিয়নের চতুর্থাংশ, অর্থাৎ প্রায় আড়াই লাখ গর্ভবতী ও স্তন্যদানকারী মায়ের অপুষ্টির চিকিৎসা দরকার। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সরকারের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে দক্ষিণ ইয়েমেনের প্রায় ১৪ লাখ শিশু, যাদের বয়স পাঁচ বছরের কম।