টেলকো টেক

অপোর হুইসেল আউট অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ লাভ

বিশ্বখ্যাত ‘হুইসেল আউট’ অ্যাওয়ার্ডে ‘সেরা স্মার্টফোন নির্মাতা’ ও ‘সেরা ফোন ডিজাইন’-এর পুরস্কারঅর্জন করেছে খ্যাতনামা স্মার্টফোন নির্মাতা ব্র্যান্ড অপো।
টেলিযোগাযোগ খাতের সেরা সব অবদানকে স্বীকৃতি দেওয়ার প্রয়াসে এ পুরস্কার দেয় স্মার্টফোন ও সংযোগের ক্ষেত্রে নামকরা ওয়েবসাইট ‘হুইসেল আউট’। বিশেষজ্ঞ সম্পাদনা পর্ষদের সমন্বয়ে বছরের সেরা স্মার্টফোন ও সংযোগের দামসহ ব্যাটারি, স্ক্রিন, ক্যামেরা, ডিজাইন ও সেরা ফোন নির্মাতাকে স্বীকৃতি দেওয়া হয় এ পুরস্কারের মধ্য দিয়ে। ২০১৯ সালের হুইসেল-আউট অ্যাওয়ার্ডে সেরা ফোননির্মাতা ও অপো রেনো ফাইভজি স্মার্টফোনের জন্যে ‘সেরা স্মার্টফোন ডিজাইন’-এর স্বীকৃতি পেল অপো।
হুইসেল-আউটের ম্যানেজিং এডিটর অ্যালেক্স চোরোসের মতে, স্মার্টফোন জগতে আমূল পরিবর্তন আনার পাশাপাশি স্মার্টফোন গ্রাহকদের জন্যে মৌলিক নানা উপযোগিতা সৃষ্টিতে সক্ষম হয়েছে অপো। গত এক বছরে বেশ পরিণত স্মার্টফোন নির্মাতা হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। শুরু থেকেই নিজেদের মৌলিক অবস্থান অটুট রেখে সেরা স্মার্টফোন নির্মাতা হয়ে ওঠা ছাড়াও উদ্ভাবনের ক্ষেত্রেও নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করতে সক্ষম হয়েছে এ প্রতিষ্ঠান। কোনো ধারা অনুসরণ নয়, বরং ধারা সৃষ্টিতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে অপো।
অপো বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মি. ডেমন ইয়াং বলেন, সম্প্রতি অর্জন করা এ স্বীকৃতি প্রমাণ করে অপো সব সময় গ্রাহকদের উপযোগিতা ও উদ্ভাবনে যত্নশীল। এ অর্জন সম্ভব হয়েছে কেবল উদ্ভাবন ও ডিজাইনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বদানের মাধ্যমে। হুইসেল আউট অ্যাওয়ার্ড পুরস্কার অর্জন করতে পেরে আমরা গর্বিত। এ ধরনের পুরস্কার স্মার্টফোন ডিজাইন ও এর সক্ষমতা দিতে অপোর সব সদস্যের নিরলস প্রচেষ্টার বিষয়টিকেই তুলে ধরেছে।
স্মার্টফোনে নিত্যনতুন উদ্ভাবন ও ডিজাইনের ক্ষেত্রে নিজেদের ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রয়াসে কাজ করে চলেছে অপোর। এরই ধারাবাহিকতায় এ মাসে অপো এনেছে শতভাগ ফুলস্ক্রিন ফোন নির্মাণের উপযোগী ‘ওয়াটারফল স্ক্রিন’। এছাড়া প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে আকর্ষণীয় নানা ফিচার ও ডিজাইনের স্মার্টফোন।
অপো: বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো তার ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী
প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্য একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরও অসাধারণ অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্য আনে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এ ব্র্যান্ডের মাধ্যমেই সূচনা হয়েছে সেলফি বিউটিফিকেশনের এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় এনেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিচার ও ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি। ২০১৬ সালে অপোর সেলফি বিশেষজ্ঞ-খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভূমিকা রাখে। ২০১৭ সালে আইডিসির র‌্যাংকিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোন ব্র্যান্ড নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর চার লাখের বেশি স্টোর আর বিশ্বজুড়ে চারটি রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়ে তরুণদের স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো। ২০১৮ সালে ‘ফাইন্ড এক্স’ আনার মাধ্যমে অপো প্রবর্তন করে আজ পর্যন্ত বাজারে থাকা স্মার্টফোনগুলোর মাঝে সর্বোচ্চ ৯৩ দশমিক আট শতাংশ স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাতের প্যানারমিক আর্ক ডিজাইনের ডিসপ্লে। এছাড়া সম্প্রতি ‘আর১৭’-এর মাধ্যমে অপো এনেছে সুপার-ভোক ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি।

 

 

 

সর্বশেষ..