বিশ্ব সংবাদ

অমিত শাহ’র বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার সুপারিশ

শেয়ার বিজ ডেস্ক : ভারতের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভায় সদ্য পাস হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে ‘ভুল পথের বিপজ্জনক মোড়’ হিসেবে বর্ণনা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ধর্মীয় স্বাধীনতাবিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন (ইউএসসিআইআরএফ)। কমিশন জানিয়েছে, ভারতীয় সংসদের উভয় কক্ষেই যদি নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হয়, তাহলে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও ক্ষমতাসীন বিজেপির শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা দেওয়া উচিত। এদিকে গত সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে পাস হওয়া নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে উত্তর-পূর্ব ভারত। এ বিলের বিরোধিতা করে অঞ্চলটিতে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে নর্থ ইস্ট স্টুডেন্টস অরগানাইজেশন, অল আসাম স্টুডেন্টস ইউনিয়নসহ একাধিক ছাত্র সংগঠন।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান থেকে যে হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন ও খ্রিস্টানরা ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হয়ে ভারতে এসেছেন, তাদের বেআইনি অনুপ্রবেশকারী হিসেবে ধরা হবে না। তাদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে।

ইউএসসিআইআরএফ জানিয়েছে, লোকসভায় অমিত শাহ’র উত্থাপন করা বিলে ধর্মকে মানদণ্ড হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে।

সোমবার লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল উত্থাপন করেন অমিত শাহ। বিলটি ৩১১-৮০ ভোটে পাস হয় আজ ভোররাতে। এরপর এটি রাজ্যসভায় উত্থাপন করা হবে। এ বিলের বিরোধিতা করে কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস ও অন্যান্য বিরোধী দল।

বিলটি ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ মনোভাবের ইতিহাসের বিরোধিতা করছে বলে উল্লেখ করে ইউএসসিআরএফ জানায়, এটি একটি বিপজ্জনক দিকে বাঁক নিচ্ছে। কমিশনের বক্তব্য, বিলটি ভারতীয় সংবিধানের বিরোধিতা করছে। সংবিধানে সবার সাম্যের কথা বলা হয়েছে।

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকেই আসামের ডিব্রুগড় ও জোড়হাটের রাজপথে নামতে শুরু করে বিক্ষুব্ধ জনতা। জোরহাট, বঙ্গাইগাঁওয়ে বিক্ষোভ থেকে এ বিলের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলেন আন্দোলনকারীরা। অস্থিরতার আশঙ্কায় আসামে একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। রাজ্যের দুই জেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। খোলা হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইন।

দুই রাজ্যে বহু জায়গায় দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। রাস্তায় মানুষজনের দেখা নেই। কোথাও কোথাও রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে নিজেদের ক্ষোভের জানান দিচ্ছে আন্দোলনকারীরা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..