বিশ্ব সংবাদ

অর্থনৈতিক করিডর স্থাপনে সম্মত চীন-মিয়ানমার

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চীনের ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড উদ্যোগের অংশ হিসেবে অর্থনৈতিক করিডর স্থাপনে ১৫টি শর্তে সম্মত হয়েছে চীন ও মিয়ানমার। চলতি বছরেই এ সমঝোতা স্মারকে দু’দেশ সই করতে পারে বলে জানিয়েছেন মিয়ানমারের ডিরেক্টরেট অব ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড কোম্পানি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (ডিআইসিএ) পরিচালক ইউ মিন জাও ও। খবর ইরাবতি।
মিয়ানমারের সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ অংশীদার চীন। মিয়ানমারের বিনিয়োগ দফতরের তথ্য অনুযায়ী, ১৯৮৮ সাল থেকে ২০১৮ সালের মে মাস পর্যন্ত মিয়ানমারে চীনের বিনিয়োগের পরিমাণ দুই হাজার এক কোটি ডলার। গত বছরের নভেম্বরে নেপিদো সফরের সময় চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই অর্থনেতিক করিডোর নির্মাণে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সুচিকে প্রস্তাব দেন।
গত ফেব্রুয়ারিতে দু’দেশের কর্মকর্তারা অর্থনৈতিক করিডোর নির্মাণে সমঝোতা স্মারকের শর্তাবলি চূড়ান্ত করেন। পরে মন্ত্রিপরিষদ এটি পর্যালোচনা করে। শর্তাবলিতে সম্মত হওয়ায় বছরের যে কোনো সময়েই তা সই হবে বলে জানিয়েছেন ইউ মিন জাও ও। তিনি জানান, সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী অর্থনৈতিক করিডোরের উন্নয়নে দু’দেশ মৌলিক অবকাঠামো, নির্মাণ, উৎপাদন, কৃষি, পরিবহন, বিনিয়োগ, মানবসম্পদ উন্নয়ন, টেলিকমিউনিকেশনস ও গবেষণা প্রযুক্তিতে সহযোগিতা করবে।
অর্থনৈতিক করিডোর কার্যকর করতে দু’দেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে ওয়ার্কিং গ্রুপ ও দু’দেশের মধ্যকার যৌথ কমিটি গঠনের প্রয়োজন হবে। দু’দেশের উপমন্ত্রী পর্যায়ে অবকাঠামো প্রকল্প নিয়ে আলোচনা হবে।
মিয়ানমারের বিনিয়োগ বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, চীনের ইউনান প্রদেশ থেকে এ করিডোর শুরু হয়ে মিয়ানমারের মান্দালয় পর্যন্ত বিস্তৃত হবে। তারপর এটি ইয়াঙ্গুনের পূর্বাঞ্চল ও কাউকফিয়ু বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের পশ্চিমাঞ্চল দিয়ে চলে যাবে।

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..