অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলছে আন্তঃনগর ট্রেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা সংক্রমণ রোধে অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে চলছে আন্তঃনগর ট্রেন। এ জন্য গত বুধবার সন্ধ্যা থেকেই ধারণ ক্ষমতার ৫০ ভাগ টিকিট বিক্রি শুরু করে রেল কর্তৃপক্ষ। শুধু তাই নয়, মুখে মাস্ক নেই, এমন ক্রেতার কাছে টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে না। এমনকি টিকিট থাকলেও মাস্ক না থাকলে স্টেশনের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল থেকে অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখেই কমলাপুর স্টেশন থেকে ছেড়ে গেছে বেশ কয়েকটি ট্রেন। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ এসব পদক্ষেপ নিয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, স্টেশনে ঢোকার পথেই একটি বোতলে জীবাণুনাশক রাখা রয়েছে। পাশেই সেটা ব্যবহারের অনুরোধ করে লেখা একটি বিজ্ঞপ্তি। তবে যাত্রীদের এই স্যানিটাইজার খুব বেশি ব্যবহার করতে দেখা যায়নি।

সকাল থেকে ঢাকা ছেড়ে যাওয়া একাধিক আন্তঃনগর ও লোকাল ট্রেনের ভেতরে গিয়ে দেখা যায়, যাত্রীরা আসন ফাঁকা রেখে বসেছেন। তবে পরিচিত যাত্রীদের কেউ কেউ ট্রেনে উঠে পাশাপাশি বসেছেন। সঙ্গে ছোট সন্তান আছে, এমন অনেক অভিভাবক পাশের আসনে সন্তানকে বসিয়েছেন।

এদিকে ট্রেনের ৫০ শতাংশ আসনের ২৫ শতাংশ অনলাইনে এবং ২৫ শতাংশ টিকিট কাউন্টারে দেয়া হচ্ছে। যাত্রীদের মাস্ক ছাড়া স্টেশনে প্রবেশের ক্ষেত্রে রয়েছে কড়াকড়ি।

তবে কালোবাজারিদের কারণে টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা। তারা বলেন, অনলাইনে টিকিট দেয়া শুরু পর পরই সব শেষ হয়ে যাচ্ছে। এ কারণে টিকিট সংগ্রহ করতে গিয়ে পড়তে হচ্ছে বিড়ম্বনায়।

গত মঙ্গলবার রেলওয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে আসন ফাঁকা রেখে চলাচলের বিষয়টি জানানো হয়। এর আগে সরকার দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি রোধে ১১টি বিধিনিষেধ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯৯১  জন  

সর্বশেষ..