প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

অষ্টম লেদারটেক বাংলাদেশ শুরু ৭ ডিসেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেশন সিটি বসুন্ধরায় আগামী ৭ ডিসেম্বর, বুধবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে চামড়া শিল্পের সবচেয়ে বড় প্রদর্শণী ‘লেদারটেক বাংলাদেশ ২০২২’র অষ্টম আসর। বিভিন্ন শিল্প সমিতির নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি প্রধান অতিথি হিসাবে সকালে প্রদর্শণীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

তিনদিনের এই প্রদর্শনীটি শেষ হবে আগামী ৯ ডিসেম্বর, শুক্রবার।
তিনদিনব্যাপী এ ট্রেড শো’তে বাংলাদেশের চামড়া, চামড়াজাত পণ্য এবং ফুটওয়্যাার শিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় মেশিনারি, কম্পোনেন্ট, ক্যামিকেল এবং অ্যাকসেসরিজ সংশ্লিষ্ট আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় প্রযুক্তি তুলে ধরা হবে। ভারত থেকে কাউন্সিল ফর লেদার এক্সপোর্টস (সিএলই) এবং ইন্ডিয়ান ফুটওযয়্যার কম্পোনেন্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (ইফকোমা) প্যাভিলিয়ন সহ ১০টি দেশের প্রায় ২০০ প্রতিষ্ঠান এই আয়োজনের অংশগ্রহণ করবে।

কোভিড-১৯-এর পরে, পরিবর্তিত ব্যবসায়িক ল্যান্ডস্কেপে, ২০২০ সালে চামড়াজাত পণ্যের বিশ্বব্যাপী বাজার অনুমান করা হয়েছিল ২৪০.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, এবং ২০২৭ সাল নাগাদ ৩১৮.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সংশোধিত আকারে পৌঁছবে বলে অনুমান করা হচ্ছে, যা ৪.১% এর ঈঅএজ-এ বৃদ্ধি পাবে। পাদুকা ৪.৮% ঈঅএজ রেকর্ড করবে এবং ২০২৭ সালের শেষ নাগাদ মার্কিন ডলার ১১৬.১ বিলিয়নে পৌঁছবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় দশ বছরের একটি পরিকল্পনা করেছে, যাতে ২০৩০ সালের মধ্যে চামড়া খাতের রপ্তানি আয় ১ বিলিয়ন থেকে ১০-১২ বিলিয়নে উন্নীত করার লক্ষ্য অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। সরকার আগামী ৯ বছরে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য থেকে তার রপ্তানি আয়ের দশগুণ বৃদ্ধির দিকে নজর দিচ্ছে। তবে, ২০২০-২১ অর্থবছরে, রপ্তানি প্রায় ১৮% বেড়েছে। চলতি অর্থবছরের প্রথম সাত মাসে রপ্তানি বেড়েছে প্রায় ৩০ শতাংশ।

আয়োজক সংস্থা আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন্স প্রাইভেট লিমিটেড’এর পরিচালক নন্দ গোপাল কে বলেন, “ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কারণে চীন ও পাকিস্তানের অংশগ্রহণ ক্রমাগত হ্রাস পেয়েছে। তবে প্রায় ৩ বছরের ব্যবধান সত্ত্বেও এবারের আয়োজনে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে মেশিনারি সরবরাহকারীদের অংশগ্রহণে বাংলাদেশের ফুটওয়্যার এবং চামড়াজাত পণ্য খাতের সম্ভাবনাকেই তুলে ধরা হচ্ছে। সেই সাথে বিগত বছরগুলির তুলনায় কম্পোনেন্টস, অ্যাকসেসরিজ, ডাইস এবং কেমিক্যালস’র প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে লেদারটেক বাংলাদেশ ফুটওয়্যার এবং লেদার প্রোডাক্টস সেক্টর নিজেদের জন্য একটি “দ্য লেদার ইন্ডাস্ট্রি নেটওয়ার্কিং ফোরাম” হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছে।

নন্দ গোপাল কে আরো বলেন, এই প্রদর্শনীর প্রোফাইলটি ব্যাপক এবং তিনদিনের শোতে বিশ্ব নেতাদের উপস্থিতি থেকে স্থানীয় শিল্প উপকৃত হবে”।