খবর

আইন করে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করতে পারবেন না: কৃষিমন্ত্রী

প্রতিনিধি, গাজীপুর: আইন করে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা সম্ভব না বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেছেন, ১৮ বছর বয়সে মানুষের কথা বলার অধিকার- এটা ফ্রিডম অব স্পিচ। একজন ছাত্র, সে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। সে যদি স্বাধীনভাবে কোনো কথা বলে, সংবিধান লঙ্ঘন না করে যে কোনো বিষয়ে সে বলতেই পারে। আপনি তো আইন করে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করতে পারবেন না। গতকাল গাজীপুরে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বারি) কেন্দ্রীয় গবেষণা পর্যালোচনা ও কর্মসূচি প্রণয়ন কর্মশালায় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।
কৃষিমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর সব দেশেই ছাত্র রাজনীতি রয়েছে। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে বিজেপি, কংগ্রেস তাদেরও ছাত্র সংগঠন রয়েছে। এমনকি, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়েও ছাত্র রাজনীতি রয়েছে। সেখানেও স্টুডেন্টস ইউনিয়ন রয়েছে। সেখানেও দলীয় ভিত্তিতে নির্বাচন হয়। অন্যান্য রাজনৈতিক দলও তাদের প্রার্থী দাঁড় করায়। ছাত্র রাজনীতি আগেও ছিল। আমরাও ছাত্র রাজনীতি করেছি। দেশ স্বাধীনের পর, ’৭২-এর পর আমরা জাসদের কাছে ছাত্র রাজনীতির নির্বাচনে হেরেছি। তাই বলে কী ছাত্র রাজনীতি বন্ধ হয়েছে? মন্ত্রী আরও বলেন, তবে ছাত্র রাজনীতি হতে হবে স্বচ্ছ, সুন্দর এবং নৈতিক। ছাত্র রাজনীতির বিপক্ষে আমরা না। এটা মানুষের মৌলিক অধিকার, গণতান্ত্রিক চিন্তা-চেতনার মধ্যে ছাত্র রাজনীতি করতে হবে। গণতান্ত্রিক পরিবেশে পেশী শক্তির ব্যবহার কোনো ক্রমেই করতে দেওয়া যাবে না।
বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. আবুল কালাম আযাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য কৃষিবিদ আব্দুল মান্নান, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান, বারির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ড. কাজী এম বদরুদ্দোজা প্রমুখ।

 

 

সর্বশেষ..