দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

আইসিডি কমলাপুর ছাড়লেও জব্দ করল কাস্টমস গোয়েন্দা

নিজস্ব প্রতিবেদক : আনিকা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি প্রতিষ্ঠানের ঘোষণার অতিরিক্ত ও ঘোষণাবহির্ভূত কসমেটিকস আটক করেছে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। আইসিডি কমলাপুর কাস্টম হাউস থেকে এসব পণ্য জব্দ করা হয়। প্রতিষ্ঠানটি রাজস্ব ফাঁকি দিতে মিথ্যা ঘোষণা দিয়েছে। তবে আইসিডি কাস্টম হাউস পণ্য কায়িক পরীক্ষা করে খালাসের আগ মুহূর্তে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনটি কাভার্ডভ্যান-ভর্তি এসব পণ্য জব্দ করে কাস্টমস গোয়েন্দা, যাতে জরিমানাসহ রাজস্ব ফাঁকি দেওয়া হয়েছে প্রায় ৬০ লাখ টাকা। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, নয়াপল্টন এলাকার প্রতিষ্ঠান আনিকা এন্টারপ্রাইজ। প্রতিষ্ঠানটি চীন থেকে একটি চালানে পণ্য আমদানি করে, যাতে ঘোষণা দেওয়া হয় শিশুদের কিছু পণ্য ও কয়েক ধরনের কসমেটিকস। ২৭ আগস্ট প্রতিষ্ঠানটি অনন্য ট্রেডিং নামে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের মাধ্যমে বিল অব এন্ট্রি দাখিল করে। ঘোষণা অনুযায়ী আইসিডি কমলাপুর কাস্টমস কর্মকর্তারা ৬ সেপ্টেম্বর পণ্য পরীক্ষা ও অ্যাসেসমেন্ট করেন।

আইসিডির পণ্য পরীক্ষা ও অ্যাসেসমেন্টের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠানটি শুল্ককর পরিশোধ করে ৬ সেপ্টেম্বর তা খালাসের জন্য তিনটি কানভার্ডভ্যানে পণ্য তোলে। কিন্তু চালানটিতে মিথ্যা ঘোষণা ও ঘোষণাবহির্ভূত পণ্য রয়েছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে কাস্টমস গোয়েন্দা কর্মকর্তা চালানটি আটক করে। পরে কার্ভাডভ্যান খুলে পণ্যের কায়িক পরীক্ষা করা হয়। তাতে দেখা যায়, কসমেটিকস পণ্য মেকআপ ঘোষণার তুলনায় ৬৮৫ কেজি, হেয়ার সপ জেল ৮৫২ কেজি ও কটন বাড ২৪২ কেজি ঘোষণার অতিরিক্ত পাওয়া যায়।

এছাড়া চালানে ঘোষণাবহির্ভূত ১৬৩ কেজি ফেয়ারনেস বিউটি ক্রিম, লেবেলবিহীন পণ্য ৭৫৬ কেজি ও স্টিকার ৩১ কেজি পাওয়া যায়। ঘোষণার অতিরিক্ত ও ঘোষণাবহির্ভূত পণ্যের জরিমানাসহ প্রায় ৬০ লাখ টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মিথ্যা ঘোষণা দেওয়ায় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করেছে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ ➧

সর্বশেষ..