আজকের পত্রিকা দিনের খবর শেষ পাতা সর্বশেষ সংবাদ

আইসোলেশনের জন্য ২০০ লঞ্চ দিচ্ছেন মালিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে অনির্দিষ্টিকালের জন্য যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে সরকার। ফলে ২৪ মার্চ থেকে সারাদেশে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এসব লঞ্চ সদরঘাট, বরিশালসহ বিভিন্ন ঘাটে অলস পড়ে রয়েছে। করোনা ইতোমধ্যে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনা মোকাবেলায় বেসরকারি বেশিরভাগ খাত সরকারের ডাকে সাড়া দিয়েছে।

লঞ্চ মালিকরাও করোনা প্রতিরোধে সরকারের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছে। অলস পড়ে থাকা দুই শতাধিক লঞ্চকে আইসোলেশনের জন্য দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন লঞ্চ মালিকরা। মালিকরা সম্প্রতি নৌপরিবহন মন্ত্রণলায়কে এ সংক্রান্ত প্রস্তাব দিয়েছে। লঞ্চ মালিক সমিতির কর্মকর্তা ও এম ভি পারাবত লঞ্চ কোম্পানির মালিক শহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, দেশের করোনা ভাইরাসে ঢাকার বুড়িগঙ্গা নদীতে লকডাউনে অলস পড়ে থাকা দুইশত তিনতলা বিলাশ বহুল লঞ্চ দুর্গম এলাকায় আইসোলেশনের জন্য দিতে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়কে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এই লঞ্চগুলোতে প্রায় ৮০ হাজার লোককে আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হবে।

সরকার চাইলে যেকোন সময়ে তাদের দুইশত লঞ্চ দিতে প্রস্তুত রয়েছেন লঞ্চ মালিকরা। লঞ্চ মালিক সমিতির এই প্রস্তাব নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালেদ মাহমুদ চৌধুরী রোববার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরে পাঠিয়েছেন। লঞ্চ মালিকদের এই সিদ্ধান্তকে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান সাধুবাদ জানিয়েছে। অন্যদিকে স্বাস্থ্য অধিদফতর লঞ্চ মালিকদের এই প্রস্তাব আমলে নিয়েছে বলে জানা গেছে।

#

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..