প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

আওয়ামীলীগ সবার অংশগ্রহনে একটি স্বচ্ছ ও অবাধ নির্বাচন চায়: ডা. দীপু মনি

প্রতিনিধি, শেরপুর: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সব চেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দল। আমাদের যে ৭২ বছরের ইতিহাস, সেই ইতিহাস বলে আমরা সবসময় গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচন করে ক্ষমতায় এসেছি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ বিগত ১৩ বছর একাধিক্রমে ক্ষমতায় রয়েছে। সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন করতে প্রস্তুত আওয়ামী লীগ।আমরা চাই সবার অংশগ্রহনে একটি স্বচ্ছ ও অবাধ নির্বাচন। আমরা বিশ্বাস করি জনগন আবারও অবাধ ও সুষ্ট নির্বাচনে মাধ্যমে আমাদের নির্বাচিত করবে এবং দেশের বর্তমান অগ্রগতি-উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের যে বিকাশ হচ্ছে তা ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখবে।

তিনি রোববার (৮ মে) দুপুরে শেরপুর পৌর আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হওয়ার আগে জেলা সার্কিট হাউজে স্থানীয় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

দেশের চলমান পরীক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আগামীতে আমাদের শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার্থীরা গবেষণা করে শিখবে। প্রতিদিন যদি তাদের মূল্যায়ন হয় তাতে বছর শেষে আমরা যে পরীক্ষার কথা ভাবি সেটি যদি কমও হয় তবুও শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ভালো হবে। সারা বিশ্বে তা প্রমাণিত।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গত বছরের ১০ থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত এমপিওভুক্তির জন্য অনলাইনে আবেদন জমা নেওয়া হয়েছে। তাতে নিম্ন মাধ্যমিক স্কুল, মাধ্যমিক স্কুল, উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ ও ডিগ্রি কলেজ মিলে সাড়ে চার হাজারের বেশি আবেদন পড়েছে। এছাড়া প্রায় চার হাজার মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবেদন করেছে। আবেদন করা মোট সাড়ে ৮ হাজার প্রতিষ্ঠানের মধ্যে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সাড়ে ৬ হাজার। আবেদন পাওয়ার পর কতগুলো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা যায়, তা নিয়ে যাচাই-বাছাই চলছে। এ বিষয়ে দ্রুতই ঘোষণা করা হবে।

পরে তিনি দুপুরে শহরের চক বাজারস্থ মাঠে পৌর আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দেন। এসময় কেন্ত্রীয় নেতাদের মধ্যে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, মারুফা আক্তার পপিসহ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক, সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্রশাসক হুমাযুন কবীর রুমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র গোলাম কিবরিয়া লিটন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।