প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

আওয়ার ফ্রেন্ড মার্টিন  

 

শোবিজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক আন্দোলনের নন্দিত নেতা মার্টিন লুথার কিং জুনিয়রের জন্ম দিন আজ। তিনি ও তার সতীর্থরা যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন। মার্টিন লুথার কিংয়ের জীবন ও কর্ম নিয়ে নির্মাণ হয়েছে পাঁচটি চলচ্চিত্র। তারই কিছু চুম্বক

সেলমা: ১৯৬৫ সালে সেলমা থেকে মন্টেগোমারি পর্যন্ত লংমার্চের মধ্য দিয়ে বর্ণবাদমুক্ত সমাজব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার আন্দোলন শুরু করেছিলেন এমএলকে। সে সময় অশ্বেতাঙ্গ ব্যক্তিরা ভোট দিতে পারতেন না। ভোটের দাবিতে লংমার্চের ডাক দিয়েছিলেন এমএলকে। এ কাহিনী অবলম্বনে তৈরি হয়েছে সেলমা। মার্টিন লুথার কিংয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ডেভিড ওয়েলো।

বয়কট: স্টুয়ার্ট বার্নসের ডেব্রেক অব ফ্রিডম অবলম্বনে নির্মাণ হয়েছে এ সিনেমা। পরিচালক ক্লার্ক জনসন। মার্টিন লুথার কিংয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেন জনপ্রিয় টেলিভিশন তারকা জেফরি রাইট। মন্টেগোমারিতে বাস বয়কটের ঘটনা নিয়ে নির্মাণ হয়েছে এ চলচ্চিত্র।

দ্য উইটনেস: তথ্যচিত্রটির পুরো নাম দ্য উইটনেস: ফ্রম দ্য ব্যালকনি অব রুম ৩০৬। পরিচালক অ্যাডাম পারটোফস্কি। অভিনয় করেছেন বেনজামিন হুকস, স্যামুয়েল কাইলস, ম্যাক্সিন স্মিথ প্রমুখ। টেনেসির লরেইন মোটেলের ব্যালকনিতে মার্টিন লুথার কিংয়ের মৃত্যুদৃশ্য নিয়ে নির্মাণ হয় এ তথ্যচিত্র।

সেলমা লর্ড সেলমা: অ্যালাবামার সেলমায় সেদিন ছিল রোববার। ১১ বছর বয়সী আফ্রো-আমেরিকান বালিকা শেয়ান ওয়েবের চোখে কীভাবে ফুটে উঠেছে সেদিনের লংমার্চ, তাই-ই দেখানো হয়েছে এ সিনেমায়। পরিচালক চার্লস বারনেট।

আওয়ার ফ্রেন্ড, মার্টিন: অ্যানিমেশন ফিল্ম। এমএলকে’র আদর্শ, আন্দোলন প্রভৃতির চলচ্চিত্রায়ণ হয়েছে এখানে। এ সিনেমায় দুই বন্ধু জীবনের ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতিতে দেখা পান মার্টিন লুথার কিংয়ের। জন ট্রাভোল্টা এ সিনেমায় কণ্ঠ দিয়েছেন।