দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা

আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ল ৬২ হাজার

ডেঙ্গুতে তিনজনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে তিন জেলায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকার ইবনে সিনায় একজন, ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এক শিশু ও পিরোজপুরে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমারজেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে মোট এক হাজার ১৭৯ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৬২ হাজার ছাড়ল। এদের মধ্যে রাজধানীতে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন ৫৭০ জন এবং ঢাকার বাইরে ৬০৯ জন ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন; যা মাসখানেকের মধ্যে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি নতুন রোগীর সংখ্যা সর্বনিম্ন পর্যায়ে।
ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালের উপপরিচালক চিকিৎসক লক্ষ্মীনারায়ণ মজুমদার জানান, শনিবার ভোর পৌনে ৬টার দিকে জারিফ হোসেন নামে এই শিশুর মৃত্যু হয়।
পাঁচ মাস বয়সী জারিফ ময়মনসিংহ শহরের শিকারিকান্দা এলাকার আরিফ হোসেনের ছেলে। কয়েকদিন আগে জ্বর হলে তাকে গাজীপুরের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে পরীক্ষায় তার ডেঙ্গুর জীবাণু ধরা পড়ে। তাকে সেখানেই চিকিৎসা দেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে গতকাল ভোর ৫টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়।
চিকিৎসক লক্ষ্মীনারায়ণ বলেন, ‘ডেঙ্গুতে আক্রান্ত শরীরের বিভিন্ন অরগান কার্যকারিতা হারিয়ে ফেলার কারণে জারিফের মৃত্যু হয়েছে।’ এ নিয়ে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঁচ ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হলো বলে তিনি জানান।
এদিকে, গতকাল সকালে রাজধানীর ইবনে সিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অজয় দাস (২৫) নামে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। ইবনে সিনা হাসপাতালের গ্রাহক সেবা বিভাগের কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
নিহত তরুণ চাঁদপুরের মতলব থানার সুজাতপুর গ্রামের গৌতম দাসের ছেলে। তিনি আশুলিয়া এলাকায় পরিবারের সঙ্গে থাকতেন। নিহতের বাবা বলেন, গত ২০ আগস্ট তার ছেলে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হলে প্রথমে সাভারের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে অবস্থার অবনতি হওয়ায় শুক্রবার দুপুরে ইবনে সিনা হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে মৃত্যু হয় তার।
এছাড়া পিরোজপুরে মমতাজ বেগম (৪৫) নামে এক নারী ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। মমতাজ বেগম পিরোজপুর সদর উপজেলার তেজদাসকাঠী গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী।
পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এক সপ্তাহ আগে মমতাজ বেগম ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হন। প্রথমে তাকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। গতকাল সন্ধ্যায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। শনিবার জানাজা শেষে মমতাজ বেগমের লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
মমতাজ বেগমের প্রতিবেশী আবদুল মান্নান বলেন, এক সপ্তাহ আগে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মমতাজ বেগম পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি হলে ডেঙ্গু ধরা পড়ে। মমতাজ বেগম চার সন্তানের জননী ছিলেন।
পিরোজপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন বলেন, এই হাসপাতালে আনার পর শনাক্ত হয় মমতাজ বেগম ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। পরে তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
পিরোজপুরের টোনা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন হাওলাদার এই মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সর্বশেষ..