Print Date & Time : 25 October 2021 Monday 11:34 pm

আগ্রহের শীর্ষে প্রকৌশল খাত

প্রকাশ: July 18, 2021 সময়- 11:17 pm

মুস্তাফিজুর রহমান নাহিদ: সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার মধ্য দিয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন শেষ হয়েছে। দিন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ৫৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ছয় হাজার ৩৬৫ পয়েন্টে। এর মধ্য দিয়ে সূচকটি সর্বোচ্চ (চালুর পর থেকে) পর্যায়ে চলে যায়। এর আগে ২০১৭ সালে ২৬ নভেম্বর সূচকটির অবস্থান ছিল তিন হাজার ৩৩৬ পয়েন্টে। তবে সূচক ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও হ্রাস পেয়েছে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর।

গতকাল ডিএসইতে মোট ৩৭৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্য দর কমে ২১০টির, বাড়ে ১৫০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর।

এদিকে গতকালের বাজার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, লেনদেনের শুরুতে সূচক নিম্নমুখী হতে দেখা যায়। এরপর বাজার ঊর্ধ্বমুখী হতে শুরু করে। এর কিছুক্ষণের মধ্য কারিগরি ত্রুটির কারণে ১১টা ১০ থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত লেনদেন বন্ধ থাকে। পরে সমস্যার সমাধান হলে লেনদেন সময় সাড়ে ৩টা পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

অন্যদিকে গতকালের লেনদেনে চোখ রাখলে দেখা যায়, এ দিন বস্ত্র ও বিমা খাত হঠিয়ে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহের শীর্ষে চলে আসে প্রকৌশল খাত।  সকাল থেকে এ খাতের শেয়ার বেশি কেনাবেচা হতে দেখা যায়। এর জের ধরে দিন শেষে সবার শীর্ষে চলে আসে খাতটি। গতকালের মোট লেনদেনে প্রকৌশল খাতের অবদান ছিল প্রায় ১৫ শতাংশ। লেনদেনে এর পরের অবস্থানে ছিল বিবিধ খাত। এ খাতটি লেনদেনে ১৪ শতাংশ অবদান রাখতে সক্ষম হয়।  এর পরের অবস্থানে থাকা ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেনে মোট ১১ শতাংশ অবদান রাখে। তবে গতকাল লেনদেনে উল্লেখযোগ্যহারে পিছিয়ে গেছে বস্ত্র ও বিমা খাত।  দিন শেষে মোট লেনদেনে বিমা খাতের সাত দশমিক ছয় এবং টেক্সটাইল খাত প্রায় ১০ শতাংশ অবদান রাখে।

এদিকে গককাল ডিএসইতে মোট এক হাজার ৭৯৩ কোটি টাকার শেয়ার এবং মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়। এর মধ্য ব্লক মার্কেটের লেনদেন ছিল ২৫ কোটি টাকা। এ মার্কেটে গতকাল মোট ৪৫টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নেয়। এর আগের কার্যদিবসে ডিএসইতে মোট এক হাজার ৭৮৯ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়।