মত-বিশ্লেষণ

আজকের এইদিনে

প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী এসএম সুলতান ১৯২৩ সালের এই দিনে নড়াইলের মাসিমদিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পুরো নাম শেখ মোহাম্মদ সুলতান। পরিবারের লোকজন তাকে লাল মিয়া বলে ডাকত। মাত্র ১০ বছর বয়সে  এসএম সুলতান স্কুল পরিদর্শনে আসা ড. শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জির ছবি এঁকে তার চোখে পড়েন। পরে এলাকার জমিদার ধীরেন্দ্রনাথ রায়ের সহায়তায়  সুলতান ১৯৩৮ সালে কলকাতা যান। কলকাতা আর্ট স্কুলে তিন বছর পড়াশোনার পর সুলতান আর্ট স্কুল ছেড়ে দেশ ভ্রমণে বের হয়ে পড়েন। সে সময় থেকেই  ফ্রিল্যান্স শিল্পীর জীবন শুরু করেন। ১৯৪৬ সালে সিমলায় তার আঁকা ছবির প্রথম প্রদর্শনী হয়। ১৯৫০ সালে নিউইয়র্ক যান ও ওয়াশিংটন, শিকাগো, বোস্টন এবং এরপর লন্ডনে তার ছবির প্রদর্শনী করেন। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে তার ১৭টি একক চিত্র প্রদর্শনী করা হয়।  সুলতানের ছবিতে পরিপূর্ণতা এবং প্রাণপ্রাচুর্যের পাশাপাশি আছে শ্রেণির দ্বন্দ্ব, এবং গ্রামীণ অর্থনীতির কিছু ক্রুর বাস্তবতা। তার ছবিগুলোয় বিশ্বসভ্যতার কেন্দ্র হিসেবে গ্রামের মহিমা উঠে এসেছে এবং কৃষককে এই কেন্দ্রের রূপকার হিসেবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। তিনি গ্রামীণ নারীদের চিরাচরিত রূপলাবণ্যের সঙ্গে তিনি শক্তির সম্মিলন ঘটান। ১৯৮২ সালে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি ম্যান অব অ্যাচিভমেন্ট এবং এশিয়া উইক পত্রিকা থেকে ম্যান অব এশিয়া পুরস্কার লাভ করেন। একই বছর তিনি একুশে পদক পান।

এসএম সুলতান নন্দনকানন নামের প্রাইমারি ও একটি হাইস্কুল এবং একটি আর্ট স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। শিশুদের জন্য একটি বিরাট নৌকাও বানান। ১৯৯৪ সালের ১০ অক্টোবর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

আজকের দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলি

#    ১৯২০  প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শেষে মিত্র ও সহযোগী শক্তির সঙ্গে উসমানীয় সাম্রাজ্যের সেভ্র চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়

#    ১৯১৫  ইংরেজ পদার্থবিদ আণবিক সংখ্যার তত্ত্ব, এক্স-রে বর্ণালিতে মোসলে সূত্রের প্রবক্তা, হেনরি মোসলে মৃত্যুবরণ করেন

#    ১৯৪৫   দ্বিতীয় মহাযুদ্ধে জাপান নিঃশর্ত আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..