মত-বিশ্লেষণ

আজকের এইদিনে

উপমহাদেশের প্রখ্যাত লোকসংগীত ও আধুনিক গানের শিল্পী, সুরকার, গীতিকার, সংগীত পরিচালক শচীন দেববর্মণ (এসডি বর্মণ)। তিনি ১৯০৬ সালের এই দিনে কুমিল্লায় কুমার বাহাদুর নবদ্বীপচন্দ্রের প্রাসাদে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন ত্রিপুরার চন্দ্রবংশীয় মানিক্য রাজপরিবারের সন্তান।

শচীন দেব বর্মণ ছেলেবেলা থেকেই লোকসংগীতের প্রতি আকৃষ্ট হন। তিনি বহু লোকসংগীত সংগ্রহ করেন এবং রাগসংগীতের সংমিশ্রণে সুরারোপ করে নতুন সুরজাল সৃষ্টি করেন। ১৯২৩ সালে আকাশবাণী কলকাতা কেন্দ্রে তিনি প্রথম গান করেন। ১৯৩২ সালে ভারতের বিখ্যাত রেকর্ড প্রস্তুতকারী শীর্ষ প্রতিষ্ঠান এইচএমভিতে অডিশনে প্রথমে ফেল করলেও সে বছরই তিনি প্রথম গ্রামোফোন রেকর্ড বের করতে সফল হন। ১৯৩০-এর দশকে তিনি রেডিওতে পল্লিগীতি গেয়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। পূর্ববাংলা এবং উত্তর-পূর্ব বাংলার পল্লিগীতির ওপর তার বিশেষ আগ্রহ ছিল। ১৯৩৪ সালে নিখিল ভারত সংগীত সম্মিলনে গান গেয়ে তিনি স্বর্ণপদক লাভ করেন।  লোকসংগীতের বাইরে তিনি নজরুলের কথা ও সুরে চারটি গান রেকর্ড করেন। ১৯৩৭ সাল থেকে বাংলা ছায়াছবিতে তিনি সংগীত পরিচালনা করেন। তিনি ৮০টির মতো হিন্দি চলচ্চিত্রে সংগীত পরিচালনা করে চিত্রজগতে বিশেষ খ্যাতির অর্জন করেন। তার উল্লেখযোগ্য গানগুলোর মধ্যেÑ‘যদি দখিনা পবন’ (রাগপ্রধান), ‘প্রেমের সমাধি তীরে’ (কাব্যগীতি), ‘নিশীথে যাইও ফুলবনে’ (পল্লিগীতি), ‘বধুঁগো এই মধুমাস’ (পল্লিগীতি), ‘ওরে সুজন নাইয়া’ (পল্লিগীতি) প্রভৃতি। সংগীতে অবদানের জন্য তিনি প্রচুর পুরস্কার ও স্বীকৃতি লাভ করেন। শচীন দেব বর্মণ ১৯৬৯ সালে ভারত সরকারের ‘পদ্মশ্রী’ উপাধি এবং চলচ্চিত্রে হিন্দি গানের নেপথ্য গায়ক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। ১৯৭৫ সালের ৩১ অক্টোবর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

আজকের দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলি

#            ২০০১   বাংলাদেশে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়

#            ১৯০৯  ভাগলপুরে বেগম রোকেয়া কর্তৃক ভাগলপুর সাখাওয়াৎ মেমোরিয়াল স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হয়

#            ১৯৬০   নাইজেরিয়া ব্রিটেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে

#            ১৯৯০   বাংলাদেশের প্রমীলা ক্রিকেটার সালমা খাতুন জন্মগ্রহণ করেন

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..