মত-বিশ্লেষণ

আজকের এই দিনে

মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ফয়েজ আহমদের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। তিনি ১৯২৮ সালে ব্রিটিশ ভারতে ঢাকা জেলার বিক্রমপুর পরগনার (বর্তমানে মুন্সীগঞ্জ) বাসাইলভোগ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৪৮ সাল থেকে তিনি সাংবাদিকতা জীবন শুরু করেন। ১৯৫০ সালে ‘হুল্লোড়’ এবং ১৯৭১ সালে ‘স্বরাজ’ পত্রিকার সম্পাদক হন। স্বাধীনতার পর তিনি বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার প্রথম প্রধান সম্পাদক নিযুক্ত হন। তিনি ইত্তেফাক, সংবাদ, আজাদ পূর্বদেশ, সাপ্তাহিক ইনসাফ ও ইনসান এবং দৈনিক বঙ্গবার্তায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটেরও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন তিনি। ৮০’র দশকে ফয়েজ আহমদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন বছর ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন বছর সিন্ডিকেটের সদস্য ছিলেন। তিনি জাতীয় কবিতা উৎসবের একাধারে প্রথম পাঁচ বছর আহ্বায়ক ছিলেন। এছাড়া ১৯৮২ সালে বাংলা একাডেমির কাউন্সিল সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৯২ সালে একাত্তরের স্বাধীনতাবিরোধীদের বিচারের লক্ষ্যে গঠিত গণআদালতের ১১ বিচারকের মধ্যে অন্যতম ছিলেন তিনি। ফয়েজ আহমদ শিশু-কিশোরদের জন্য ছড়া ও কবিতা লিখেছেন। তার বইয়ের সংখ্যা প্রায় ১০০। এর মধ্যে ‘মধ্যরাতের অশ্বারোহী’ সবচেয়ে বিখ্যাত। তিনি বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার, একুশে পদকসহ নানা পদক ও পুরস্কার অর্জন করেন। ফয়েজ আহমদ ২০১২ সালের এ দিনে মৃত্যুবরণ করেন।

আজকের দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলি

#১৯৪৯  স্বাধীনতা সংগ্রামী অবিভক্ত বাংলার কংগ্রেস পরিষদীয় দলের নেতা ও সাহিত্যিক কিরণশঙ্কর রায় মৃত্যুবরণ করেন

# ১৯৫০ ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামী শরৎচন্দ্র বসু মৃত্যুবরণ করেন

# ১৯৭২  স্বাধীন দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে মরিশাস স্বীকৃতি দেয়

# ১৯৭৫  এক আদেশের মাধ্যমে বলা হয়, আওয়ামী লীগের সব সংসদ সদস্য বাকশালের সদস্য হিসেবে বিবেচিত হবেন

# ১৯৭৭  বাংলাদেশ সরকার রাষ্ট্রীয় পুরস্কার একুশে পদক প্রবর্তন করে

# ১৯৮৬  সাহিত্যিক ও চিকিৎসক ডা. নীহার রঞ্জন গুপ্ত মৃত্যুবরণ করেন

# ২০০৩  অভিনেতা গোলাম মুস্তাফা মৃত্যুবরণ করেন

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..