মত-বিশ্লেষণ

আজকের এই দিনে

সাহিত্যিক, বাংলা চলিত গদ্যরীতির প্রবর্তক প্রমথ চৌধুরী ১৮৬৮ সালের এই দিনে যশোরে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পৈতৃক নিবাস বর্তমান বাংলাদেশের পাবনার চাটমোহর উপজেলার হরিপুর গ্রামে। তিনি ১৮৮৯ সালে দর্শনে অনার্সসহ বিএ এবং ইংরেজিতে এমএ পাস করেন। ১৮৯৩ সালে তিনি বিলাত যান ও ব্যারিস্টারি পাস করে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন কলেজে অধ্যাপনা করেন। ঠাকুর এস্টেটের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করেন। কিছু সময়ের জন্য তিনি কলকাতা হাইকোর্টে আইন ব্যবসায় যোগ দেন। পরে তিনি সাহিত্যচর্চায় পরিপূর্ণভাবে মনোনিবেশ করেন। ১৯১৪ সালে মাসিক সবুজপত্র প্রকাশনা এবং তার মাধ্যমে বাংলা চলিত গদ্যরীতির প্রবর্তন প্রমথ চৌধুরীর জীবনের শ্রেষ্ঠ কীর্তি। একে কেন্দ্র করে তখন একটি শক্তিশালী লেখকগোষ্ঠী গড়ে ওঠে। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথও এর অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। তিনি ‘বীরবল’ ছদ্মনামে এ পত্রিকায় ব্যঙ্গরসাত্মক প্রবন্ধ ও নানা গল্প প্রকাশ করেন। তিনিই বাংলা সাহিত্যে বীরবলী ধারা প্রবর্তিত করেন। তার সম্পাদিত অন্য পত্রিকাগুলো হলোÑবিশ্বভারতী (১৩৪৯-৫০), রূপ ও রীতি (১৩৪৭-৪৯) ও অলকা। প্রমথ চৌধুরী মননশীল প্রবন্ধ লেখক হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন। বাংলা সাহিত্যে তিনিই প্রথম বিদ্রƒপাত্মক প্রবন্ধ রচনা করেন। ইংরেজি ও ফরাসি সাহিত্যে সুপণ্ডিত ছিলেন তিনি। ফরাসি সনেটরীতি ট্রিয়লেট, তের্জারিমা ইত্যাদি বিদেশি কাব্যবন্ধ বাংলা কাব্যে প্রবর্তন করেন। তার উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ তেল-নুন-লাকড়ি, সনেট পঞ্চাশৎ, চার-ইয়ারি কথা, বীরবলের হালখাতা, পদচারণ, রায়তের কথা, নীললোহিত আত্মকথা ইত্যাদি। ১৯৪১ সালে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক জগত্তারিণী স্বর্ণপদকে ভূষিত হন। ১৯৪৬ সালের ২ ডিসেম্বর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

আজকের দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলি

#    ১৮৪৮  আধুনিক রসায়নের সহ-প্রতিষ্ঠাতা জনস জ্যাকব বার্জেলিয়া মৃত্যুবরণ করেন

#    ১৯৪০  অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে সম্মানসূচক ডক্টরেট উপাধিতে ভূষিত করে

#    ১৯৪৫  দ্বিতীয় মহাযুদ্ধ জাপান নিঃশর্ত আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়

#    ১৯৭৫  কবি সুফি মোতাহার হোসেন মৃত্যুবরণ করেন

#    ২০০২  নরওয়েজিয়ান কম্পিউটার বিজ্ঞানী ও রাজনীতিবিদ ক্রিস্টেন নিগার্ড মৃত্যুবরণ করেন

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..