মত-বিশ্লেষণ

আজকের এই দিনে

ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের অগ্রগামী ও প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী। সারা বিশ্বে তিনি মহাত্মা গান্ধী, বাপু বা বাবা নামে পরিচিত। তিনি ভারতের জাতির জনক। মহাত্মা গান্ধী ছিলেন সত্যাগ্রহ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা। মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী ১৮৬৯ সালে পোরবন্দরের হিন্দু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ইংল্যান্ড থেকে ব্যারিস্টারি পাস করে গান্ধী আইন ব্যবসা করতে দক্ষিণ আফ্রিকায় যান। তিনি সেখানে ভারতীয় কৃষ্ণাঙ্গদের প্রতি বৈষম্যের শিকার হন। সেখানেই তিনি প্রথম নিপীড়িত ভারতীয় নাগরিকদের অধিকার আদায়ে অহিংস শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মতাদর্শ প্রয়োগ করেন। ১৯১৫ সালে ৯ জানুয়ারি তিনি ভারতে ফিরে আসেন। ১৯২১ সালে গান্ধী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের নির্বাহী দায়িত্ব পান। এ সময়ে তিনি অভিজাত শ্রেণির সংগঠন থেকে কংগ্রেসকে জনগণের পার্টিতে রূপ দেন। পরবর্তীকালে তিনি কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৪২ সালে ইংরেজ শাসকদের প্রতি সরাসরি ভারত ছাড় আন্দোলনের সূত্রপাত ঘটান। মহাত্মা গান্ধী ১৯৩০ সালে লবণ করের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে ৪০০ কিলোমিটার দীর্ঘ ডান্ডি লবণ কুচকাওয়াজে নেতৃত্ব দেন।  এর মাধ্যমে ইংরেজ স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে জনসাধারণের আন্দোলন ঘোষিত হয়। এ আন্দোলন প্রতিষ্ঠা হয়েছিল অহিংস মতবাদ বা দর্শনের ওপর। ১৯৪৮ সালের ৩০ জানুয়ারি হিন্দু মৌলবাদী নাথুরাম গডসের গুলিতে তিনি নিহত হন। জাতিসংঘ অহিংস আন্দোলনের বিশ্ব স্বীকৃতিস্বরূপ গান্ধীর জন্মদিন ২ অক্টোবরকে আন্তর্জাতিক অহিংস দিবস হিসেবে ঘোষণা করে।

আজকের দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলি

#            ১৯০০ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ছাত্রী লীলা নাগ জন্মগ্রহণ করেন

#            ১৯২৪  প্রখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক তপন সিংহ জন্মগ্রহণ করেন

#            ১৯৩৪  জার্মানির স্বৈরশাসক রূপে এডলফ হিটলারের আত্মপ্রকাশ ঘটে

#            ১৯৭৭  ঢাকা সেনানিবাস ও বিমানবন্দরে সেনা বিদ্রোহ ঘটে, এতে বিমান বাহিনীর ১১ জন অফিসার নিহত হন

#            ১৯৯৫  বাংলাদেশ সরকার সাপটা অনুমোদন করে

#            ২০১৭  ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির নেতা জসীম উদ্দিন মণ্ডল মৃত্যুবরণ করেন

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..