প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

আজ শেষ হচ্ছে প্যাসিফিক ডেনিমসের আইপিও আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলনের জন্য অনুমোদন পাওয়া প্যাসিফিক ডেনিমস লিমিটেডের আবেদন শেষ হচ্ছে আজ (সোমবার)। বস্ত্র খাতের কোম্পানিটির আইপিও আবেদন গ্রহণ শুরু হয় ১১ ডিসেম্বর।

প্যাসিফিক ডেনিমস লিমিটেড ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে সাড়ে সাত কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ৭৫ কোটি টাকা উত্তোলন করছে। উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানি ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ সালের সমাপ্ত বছরের হিসাব অনুযায়ী কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) দুই টাকা ৬৩ পয়সা, নেট অ্যাসেট ভ্যালু (এনএভি) ২২ টাকা ৫৯ পয়সা। কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনা রয়েছে এএফসি ক্যাপিটাল।

এদিকে সরেজমিনে দেখা যায়, মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মেঘনা নদীর তীরে প্রায় ৩০০ বিঘা জমির ওপর প্যাসিফিক ডেনিমসের কারখানা। কোম্পানির পরিকল্পনা অনুযায়ী পরবর্তীতে এখানে প্যাসিফিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক গড়ে তোলা হবে। বর্তমানে এখানে তিন শিফটে প্রায় ৪০০ কর্মকর্তা-কর্মচারী কর্মরত। যারা প্রতি মাসে প্রায় ১০-১১ লাখ গজ কাপড় উৎপাদন করেন।

আইপিও আবেদনে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে দাবি করে প্রতিষ্ঠানটির কোম্পানি সচিব সোহরাব হোসেন শেয়ার বিজকে বলেন, ‘আমরা অনেক দিন থেকে ব্যবসা সম্প্রসারণের কথা ভাবছি। তবে কিছু প্রতিবন্ধকতার জন্য আমরা সেটা করতে পারিনি। আশা করি আইপিওর টাকা উত্তোলনের পর আমরা সহজে ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে পারব। আর ব্যবসা সম্প্রসারণ হলে আমাদের উৎপাদন সক্ষমতাও বাড়বে। কারণ আইপিওর টাকা নিয়ে আমরা কিছু মেশিনারিজ ক্রয় করবো। সেগুলো কারখানায় স্থাপনের পর বর্তমানের চেয়ে ২৫ শতাংশ উৎপাদন ক্ষমতা বাড়বে।’

প্রাইভেট লিমিটেড হিসেবে ২০০৩ সালে গঠিত প্যাসিফিক ডেনিমস ২০০৮ সালে বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করে। এরপর ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠানটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রূপান্তর হয়। এর আগে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৮২তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেওয়া হয়।