দিনের খবর সর্বশেষ সংবাদ

আটজন বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত, ৩৮ পদে লড়বে ৬৩ জন

বিসিএস ট্যাকসেশন নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (ট্যাকসেশন) অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী পরিষদের ২০২০-২০২১ এর নির্বাচনের চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। ৪৬টি পদের মধ্যে আটটি পদে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় আটজন নির্বাচিত হয়েছে। ফলে আটটি পদ ছাড়া বাকি ৩৮টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ৩৮টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছে ৬৩ জন প্রার্থী। ২৪ জানুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ফলে নির্বাচনকে ঘিরে কর্মকর্তাদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছেন।

বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত আটজনই উপ কর কমিশনার। তারা হলেন—গবেষণা সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান, সহ-গবেষণা সম্পাদক অমিত কুমার দাস, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. সাজ্জাদুল ইসলাম মীর, সমাজকল্যাণ সম্পাদক সাইয়ীদ ফাহাদ আল করিম, সহ-সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. সাজিদুল ইসলাম, সহ-তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক সৌমিত্র চক্রবর্তী, সহ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. আল আমিন ও ক্রীড়া সম্পাদক শেখ শামীম বুলবুল।

অপরদিকে, ৩৮টি পদে ৬৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। এর মধ্যে সভাপতির একটি পদের জন্য প্রতিদ্বন্ধিতাকারী তিনজনই কর কমিশনার। তারা হলেন—শাহীন আক্তার, মো. রেজাউল করিম চৌধুরী ও এম এম ফজলুল হক। সহ-সভাপতির তিনটি পদের জন্য প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন ছয়জন। এদের মধ্যে পাঁচজন কর কমিশনার ও একজন অতিরিক্ত কর কমিশনার। তারা হলেন—মাহবুবা হোসাইন, মো. নাজমুল করিম, মকবুল হোসেন পাইক, মো. ইকবাল হোসেন, মো. আসাদুজ্জামান ও খন্দকার খুরশীদ কামাল।

মহাসচিবের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন পাঁচজন। যাদের মধ্যে চারজন অতিরিক্ত কর কমিশনার ও একজন যুগ্ম কর কমিশনার। তারা হলেন—মঞ্জুমান আরা বেগম, মো. শাহীন আক্তার হোসেন, আয়েশা সিদ্দিকা শেলী, মো. শব্বির আহমদ ও মোহাম্মদ ফজলে আহাদ কায়ছার। কোষাধ্যক্ষের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন দুইজন অতিরিক্ত কর কমিশনার ও একজন যুগ্ম কর কমিশনার। তারা হলেন—কবির উদ্দিন মোল্লা, মো. আবুল বাসার আকন ও মো. হাফিজ আল আসাদ।

যুগ্ম মহাসচিবের দুইটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন চারজন যুগ্ম কর কমিশনার। তারা হলেন—মো. ছায়িদুজ্জামান ভূঞা, মির্জা আশিক রানা, রেজিনা সুলতানা রিজু ও মোহাম্মদ আমিরুল করিম মুন্সী। দপ্তর সম্পাদকের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন দুইজন উপ কর কমিশনার। তারা হলেন—বাপন চন্দ্র দাস ও মোহাম্মদ আরিফুল আলম। সহ-দপ্তর সম্পাদকের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন দুইজন উপ কর কমিশনার। তারা হলেন—মো. মিজানুর রহমান ও কেএম তানিম উজ জামান।

প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন দুইজন উপ কর কমিশনার। তারা হলেন—মো. গোলাম কিবরিয়া ও মো. রাশেদ রেজা। তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদকের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন যুগ্ম কর কমিশনার মো. মহিদুল ইসলাম ও উপ কর কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান। সাংস্কৃতিক সম্পাদকের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন যুগ্ম কর কমিশনার মাসুমা খাতুন ও উপ কর কমিশনার মোনালিসা শাহরীন সুস্মিতা। সহ-ক্রীড়া সম্পাদকের একটি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন উপ কর কমিশনার হারুনুর রশিদ ও সহকারী কর কমিশনার মো. আবদুল্লাহ ইউসুফ।

নির্বাহী সদস্যের ২৬টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন ৩০ জন। এর মধ্যে কর কমিশনার ক্যাটাগরিতে পাঁচজন। তারা হলেন—মোহাম্মদ জাহিদ হাছান, মো. আলমগীর হোসেন, আবু হান্নান দেলওয়ার হোসেন, মো. লুৎফুল আজীম, মো. খায়রুল ইসলাম ও ব্যারিস্টার মুতাসিম বিল্লাহ ফারুকী। অতিরিক্ত ও যুগ্ম কর কমিশনার ক্যাটাগরিতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন নয়জন। এর মধ্যে তিনজন অতিরিক্ত কর কমিশনার হলেন—রওনক আফরোজ, মনোয়ার আহমেদ ও মো. আবু সাঈদ সোহেল। ছয়জন যুগ্ম কর কমিশনার হলেন—মো. মাসুদুর রহমান মাসুদ, মোহাম্মদ ওয়াহিদ উল্লাহ খান, মো. মাহমুদুল হাছান ভূঁইয়া, মোহাম্মদ নাঈমুর রসুল, মো. মিজানুর রহমান ও মো. জাফর ইমাম।

উপ কর কমিশনার ক্যাটাগরিতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন আটজন। তারা হলেন—মো. মেহেদী হাসান, সুলতানা হাবীব, আয়েশা ফেরদৌসী, মো. আবু মুসা, মুসতবা ইশতিয়াক আহমদ, মো. আহসান উল্লাহ রাসেল, মো. মাসুদুল হক মিয়া ও এনামুল হাছান-আল-নোমান। সহকারী কর কমিশনার ক্যাটাগরিতে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন সাতজন। তারা হলেন—শাহিন সুলতানা, দিপঙ্কর চন্দ্র সরকার, মওদুদ আহম্মদ ভূঁইয়া, মনসুর আলী, মহিবুল ইসলাম ভূঁইয়া, মো. মারফত আলী ও রাফাত তাহমিদ খান।

এর আগে গত ২৩ ডিসেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশনার অপূর্ব কান্তি ঘোষণা নিবার্চনের তফসিল ঘোষণা করেন। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৪ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে তিনটায় অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচিতরা ২০২০-২০২১ দুইবছর দায়িত্ব পালন করবেন। এর আগে ২০১৭ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। গত ১ জানুয়ারি খসড়া ভোটার তালিকা, নির্বাচনযোগ্য পদ ও আসন সংখ্যার তালিকা প্রকাশ করা হয়। ২ জানুয়ারি থেকে ৮ জানুয়ারি পর‌্যন্ত মনোনয়ন বিক্রি হয়। ৫ জানুয়ারি ভোটার তালিকার বিষয়ে আপত্তি শেষে ৬ জানুয়ারি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়। এবার ভোটার সংখ্যা ৬৬৩ জন। ১২ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র জমা শেষ হয়। প্রার্থীতা প্রত্যাহার শেষে ১৫ জানুয়ারি প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়। ১৯ জানুয়ারি চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে। আর ২৪ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে তিনটা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভোট অনুষ্ঠিত হবে। প্রত্যেক প্রার্থীর ছবিযুক্ত ভোটার ফরম ইতোমধ্যে ছাপা শেষ হয়েছে।প্রত্যেক ভোটারকে ভোট কেন্দ্রে প্রবেশে নিজ নিজ পরিচয়পত্র দেখাতে হবে। কোন সদস্য পরিচয়পত্র দেখাতে না পারলে রিটার্নিং অফিসার সিদ্ধান্ত দেবেন। প্রত্যেক প্রার্থীকে মনোনয়নের সাথে নির্বাচনী আচরণ মেনে চলবেন মর্মে অঙ্গীকারনামা দাখিল করেছেন।

এর আগে ২০১৭ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাহী পরিষদের ২০১৮-১৯ এর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রথমবারের মতো সব ক’টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ৬১৫ জন ভোটারের মধ্যে ৫৩৫ জন ভোট প্রদান করেন। কমিটিতে নবীন-প্রবীণ কর্মকর্তারা স্থান পায়। কর কমিশনার মো. সেলিম আফজাল সভাপতি ও অতিরিক্ত কর কমিশনার মো. নুরুজ্জামান খান মহাসচিব নির্বাচিত হয়।

সর্বশেষ ২০১৫-১৬ সালে এনবিআর সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) মো. আব্দুর রাজ্জাক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সেলের পরিচালক মো. আলমগীর হোসেন মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮২-৮৩ এসএমএস জামান সভাপতি ও আব্দুর রহমান খাঁ সাধারণ সম্পাদক হিসেবে প্রথমবার নির্বাহী পরিষদের দায়িত্ব পালন করেন।

###

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..