টেলকো টেক

আধুনিক ডিস্ক ইন্ডাস্ট্রিতে ভূমিকা রেখেছিল ফ্লপি

ফ্লপি ডিস্কের উদ্ভাবক যুক্তরাষ্ট্রের অ্যালান শুগার্ট। তিনি ১৯৬৭ সালে আইবিএমে চাকরিকালে এটি উদ্ভাবন করেন। প্রাথমিক পর্যায়ে এটি আট ইঞ্চির (২০০ মিলিমিটার) ছিল। এতে ৮০ কিলোবাইট ডেটা সংরক্ষণ করা যেত। এর বিক্রি শুরু হয় ১৯৭১ সালে। শুরুতে আইবিএমের অন্যান্য পণ্যের পাশাপাশি এটি বাজারজাত করা হতো। ১৯৭২ সালে মেমোর‌্যাক্স এর স্বত্ব কিনে নেয়। আসলে শুগার্ট তখন আইবিএম ছেড়ে মেমের‌্যাক্সে যোগ দেন। তিনি ওই প্রতিষ্ঠানের প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লপি ডিস্ক ‘দ্য মেমোর‌্যাক্স ৬৫০’ উৎপাদন ও সরবরাহে সহায়তা করেন। এ ডিস্কে পড়ার পাশাপাশি লেখা যেত।

এতে সন্তুষ্ট ছিলেন না শুগার্ট ও তার দল। তার ওয়ার্ড প্রসেসিং মেশিনের জন্য আরও ব্যবহারযোগ্য ও সাশ্রয়ী দামের ডিস্ক উদ্ভাবনের চেষ্টা করতে থাকেন। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৭৬ সালে তারা পাঁচ দশমিক ২৫ ইঞ্চির ‘মিনি ফ্লপি’ ডিস্ক তৈরি করেন। এতে ৮৭ দশমিক পাঁচ কিলোবাইট তথ্য ধারণ করা যেত। দুই বছরের মধ্যে দশের অধিক তথ্যপ্রযুক্তিনির্মাতা প্রতিষ্ঠান একই মাপের ফ্লপি ডিস্ক তৈরি শুরু করে।

১৯৮২ সালে তৈরি করা হয় তিন দশমিক পাঁচ ইঞ্চির সংকুচিত ফ্লপি ডিস্ক। ওই বছরে ২১টি প্রতিষ্ঠান একই বৈশিষ্ট্যের ডিস্ক তৈরির ওপর গুরুত্ব দেয়। আকারে ছোট হলেও তখন এ ধরনের ডিস্কে ২৮০ কিলোবাইট তথ্য রাখা যেত। কয়েক দিনের মাথায় ৭২০ কিলোবাইটে উন্নীত হয় এ তথ্য ধারণক্ষমতা। অবশেষে এটি এক দশমিক ৪৪ মেগাবাইটে পরিণত হয়। আশির দশকের শেষের দিকে এর জনপ্রিয়তা ছিল তুঙ্গে। সর্বাধিক পরিচত ব্র্যান্ড ছিল এ ধরনের ফ্লপি ডিস্ক।

আরও দুটি পরিচিত তিন দশমিক পাঁচ ইঞ্চির ফ্লপি ডিস্ক পাওয়া যেত তখন। ইমেশন সুপারডিস্ক (এলএস-১২০ ও এলএস-২৪০) নামের এ দুটি ডিস্কের ধারণক্ষমতা ছিল যথাক্রমে ১০ ও ২৪০ মেগাবাইট। নব্বই দশকের শেষের দিকে সনি হাইএফডি বাজারজাতকরণ শুরু করে। এর ধারণক্ষমতা ছিল ২০০ মেগাবাইট।

ফ্লপি ডিস্কের জামানায় আরও পরে আধিপত্য বিস্তার করে লোমেগা জিপ ড্রাইভ। এর স্টোরেজ ক্ষমতা ছিল ১০০ মেগাবাইট। পরে ২৫০ ও ৭৫০ মেগাবাইটে উন্নীত হয় এর ধারণক্ষমতা। এর পরেই ফ্লপি ডিস্ককে জাদুঘরে তুলে দেয় সিডি, বিশেষ করে ইউএসবি ফ্ল্যাশ ড্রাইভের ব্যবহার শুরু হলে এর ব্যবহার শূন্যের কোঠায় নেমে আসে।

অপেক্ষাকৃত ধীরগতির ছিল ফ্লপি ডিস্ক। অ্যালান শুগার্ট ছিলেন এর প্রকৌশলী, উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ী। তিনি ১৯৫১ সালে আইবিএমে ফিল্ড ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। প্রতিষ্ঠানটির অনেক গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। কর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ পদোন্নতি পেয়ে ডিরেক্ট অ্যাকসেস স্টোরেজের প্রোডাক্ট ম্যানেজারের দায়িত্ব বুঝে পান। এ বিভাগটি ডিস্ক নিয়ে কাজ করত, যা ওই সময়ে আইবিএমের সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা ছিল। এখানেই তিনি ও তার দল ফ্লপি ডিস্ক উদ্ভাবন করেন। শুগার্ট পরবর্তী সময়ে মেমোর‌্যাক্সের ইকুইপমেন্ট বিভাগে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে যোগ দেন। আরও পরে শুগার্ট অ্যাসোসিয়েটস প্রতিষ্ঠা করেন। পরে এর নামকরণ করেন জেরক্স। এ নামটিও পরিবর্তন করে রাখেন সিগেট টেকনোলজি। এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ছিলেন তিনি। তার সময়ে এ প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ডিস্ক ড্রাইভ তৈরি করত। আধুনিক ডিস্ক ইন্ডাস্ট্রিতে তার অবদানের জন্য কম্পিউটার হিস্ট্রি মিউজিয়ামের অনারারি ফেলোর মর্যাদা দেওয়া হয় তাকে। তথ্যপ্রযুক্তির এ দিকপালকে বিশ্ব হারায় ২০০৬ সালে।

  রাহুল সরকার

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..