প্রচ্ছদ শেষ পাতা

আন্তর্জাতিক কার্ডে ক্যাসিনোর বিল পরিশোধ নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক: অনলাইন ক্যাসিনো বা জুয়া খেলার বিল পরিশোধের মতো নিষিদ্ধ লেনদেন আন্তর্জাতিক কার্ডে করা যাবে না। এছাড়া বৈদেশিক মুদ্রা কেনাবেচা, বিদেশি স্টক মার্কেটের ইস্যু করা কোনো আর্থিক হাতিয়ার (বন্ড বা ডিবেঞ্চার), বিট কয়েনের মতো ক্রিপ্টোকারেন্সি বা লটারি টিকিট কেনার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক কার্ড ব্যবহার করা যাবে না। 

এমনকি দেশে উৎপাদিত কোনো পণ্য কেনা বা সেবার বিল পরিশোধেও আন্তর্জাতিক কার্ড ব্যবহার করা যাবে না। কেবল বিদেশ থেকে কোনো পণ্য কেনা বা সেবার বিল অনলাইনে পরিশোধের জন্য আন্তর্জাতিক কার্ড ব্যবহার করা যাবে।

গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ থেকে জারি করা এক সার্কুলারে বিদেশি মুদ্রায় লেনদেনে নিয়োজিত অনুমোদিত ডিলার (এডি) ব্যাংকগুলোকে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়। এতে বলা হয়, কার্ড ইস্যুকারী ব্যাংকগুলোকে অনলাইন পেমেন্টের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক কার্ডের অপব্যবহার ঠেকাতে যথাযথ নিয়মাচার মেনে চলার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হলো। এখন থেকে কার্ডধারীদের আন্তর্জাতিক কার্ডের মাধ্যমে পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে প্রতিবার লেনদেনের বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে ‘অনলাইন ট্র্যানজেকশন অথোরাইজেশন ফরম (ওটিএএফ)’ পূরণ করে এডি ব্যাংকগুলোর কাছে জমা দিতে হবে। ওটিএএফ পূরণ করা যাবে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে, ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্মে বা লিখিত ফরম সরাসরি ব্যাংকের কাছে জমা দেওয়া যাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক এডি ব্যাংকগুলোকে আন্তর্জাতিক কার্ডে লেনদেনের সময় কার্ডগুলোকে সক্রিয় করতে বলেছে এবং লেনদেনের পরপরই সেগুলোকে নিষ্ক্রিয় করতে নির্দেশ দিয়েছে। এছাড়া লেনদেনের ক্ষেত্রে সঠিকভাবে মূল্য সংযোজন কর (মূসক), কর ও শুল্ক পরিশোধ করা হয়েছে কি না তাও দেখতে বলা হয়েছে এডি ব্যাংকগুলোকে।

এই নির্দেশনা মানতে ব্যাংকগুলো ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের আন্তর্জাতিক কার্ড ইস্যুর সাধারণ ক্ষমতা খর্ব করা হবে বলেও হুশিয়ারি জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ব্যাংকগুলোর সুবিধার্থে ওটিএএফের একটি নমুনা সার্কুলারের সঙ্গে ব্যাংকগুলোকে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বৈদেশিক মুদ্রায় লেনদেন নীতিমালা, ২০১৮-এর ১৯ অধ্যায়ের নির্দেশনা অনুযায়ী এডি ব্যাংকগুলোকে আন্তর্জাতিক কার্ডের মাধ্যমে বৈধ লেনদেনের পাওনা পরিশোধের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। সাধারণত বিদেশ ভ্রমণের সময় এই কার্ড ব্যবহার করা হয়। নীতিমালা অনুযায়ী অনলাইন পেমেন্টের ক্ষেত্রেও এই কার্ড ব্যবহারের সাধারণ নির্দেশনা দেওয়া রয়েছে। এই কার্ডে প্রতি লেনদেনে ৩০০ ডলারের বেশি খরচ করা যায় না। ডাউনলোড করা যায় এমন সফটওয়্যার, ই-বুক, বিদেশের স্বীকৃত বা সুপরিচিত ম্যাগাজিন বা সংবাদপত্রের গ্রাহক ফি পরিশোধের ক্ষেত্রে এ কার্ড ব্যবহার করা যায়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ »

সর্বশেষ..