বিশ্ব সংবাদ

আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারে ‘তাড়াহুড়ো’ নয়: পেন্টাগন

শেয়ার বিজ ডেস্ক: আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় আগামী শুক্রবার বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সেপ্টেম্বর নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের সব সেনা প্রত্যাহারের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে বাইডেন প্রশাসন। কিন্তু সম্প্রতি আফগানিস্তানে তালেবান হামলা বেড়েই চলছে। এরই মধ্যে পেন্টাগন ঘোষণা দিয়েছে, ‘তাড়াহুড়ো’ করে আফগানিস্তান থেকে তারা নিজেদের সব সেনা সরিয়ে নিতে চাচ্ছে না। খবর: বিবিসি।

কাবুল পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে সেনা প্রত্যাহারে আরও ধীরগতি আনতে চায় দেশটি। স্থানীয় সময় সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগের সদর দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, সম্প্রতি আফগানিস্তানে তালেবানের সহিংসতা বেড়ে যাওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে কাবুল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সব সেনা প্রত্যাহারে জো বাইডেন যে তারিখ নির্ধারণ করেছেন, তা ঠিক থাকবে বলেও জানান তিনি। চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সব বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এ বছরের ১১ সেপ্টেম্বর হবে টুইন টাওয়ার হামলার ২০ বছর।

জন কিরবি বলেন, সম্প্রতি আফগানিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতিতে পরিবর্তন এসেছে। তালেবানরা নিজেদের পেশিশক্তির প্রমাণ দিতে বিভিন্ন প্রদেশে বারবার হামলা চালাচ্ছে। এতে প্রাণ হারাচ্ছেন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যসহ বহু সাধারণ মানুষ।

কাবুলের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়গুলো যুক্তরাষ্ট্র খেয়াল রাখছে বলে মন্তব্য করেন পেন্টাগন মুখপাত্র। জন কিরবি জানান, আফগানিস্তানের তৃণমূল পর্যায়ের নিরাপত্তার বিষয়েও খোঁজ রাখছে পেন্টাগন। দেশটি থেকে সব সেনা প্রত্যাহার করে নিলেও যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানে সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে বলেও জানান জন কিরবি।

এদিকে গত দু’দিনে আফগানিস্তানে তালেবানের সঙ্গে সংঘর্ষে ২৯ নিরাপত্তাকর্মী নিহত হয়েছেন। দেশটির চারটি প্রদেশে তালেবানের হামলায় হতাহতের ঘটনা ঘটে। আফগানিস্তানের বালখ, কান্দাহার, তাখার ও কাপিসা প্রদেশে আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেছে তালেবান। আফগানিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রোববার দেশটির উত্তর-পূর্ব প্রদেশ তাখারে তালেবানের হামলায় তিন পুলিশ ও ছয় আফগান সেনাসদস্য নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরও চারজন।

এছাড়া কাপিসা প্রদেশে তালেবানের হামলায় নিহত হয়েছেন আট নিরাপত্তাকর্মী। বালখের হেওয়াদ জেলায় নিহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। কান্দাহারে প্রাণ হারিয়েছেন সাত নিরাপত্তা সদস্য। গত দু’দিনের এসব সংঘর্ষে তালেবানও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে তালেবানের পক্ষ থেকে নিজেদের হতাহতের কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

চলতি বছরের ১ মে থেকে যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে সেনা প্রত্যাহার শুরু করে। এখন পর্যন্ত নিজেদের ৪৫ শতাংশ সেনা প্রত্যাহার করেছে দেশটি। আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাকি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন জো বাইডেন।

২০১১ সাল থেকে চলা যুদ্ধ-সংঘাতে এখন পর্যন্ত ৬৪ হাজারের বেশি আফগান সেনা ও পুলিশ নিহত হয়েছেন। প্রাণ হারিয়েছেন ৪০ হাজারের বেশি সাধারণ মানুষ। নিহত হয়েছেন প্রায় সাড়ে তিন হাজার বিদেশি সেনা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..