বিশ্ব সংবাদ

আমাজন সুরক্ষায় দ. আমেরিকার সাত দেশের চুক্তি

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: আমাজনের নদী অববাহিকার সুরক্ষার ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে সম্মত হয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার সাতটি দেশ। রেকর্ডসংখ্যক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় হুমকিতে রয়েছে ‘পৃথিবীর ফুসফুস’ খ্যাত এ বনের ভবিষ্যৎ। এমন পরিস্থিতিতে কলম্বিয়ায় অনুষ্ঠিত এক সম্মেলনে আমাজন বনভূমির সুরক্ষায় কাজ করতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে তারা। ব্রাজিল ছাড়াও চুক্তিতে সই করা অন্য দেশগুলো হলো: বলিভিয়া, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, গায়ানা, পেরু ও সুরিনাম। খবর: বিবিসি।
চলতি বছর এখন পর্যন্ত ব্রাজিলে প্রায় ৮০ হাজার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা শনাক্ত হয়েছে। এর অর্ধেকেরও বেশি আগুন আমাজন বনাঞ্চলের। পরিবেশবিদেরা দাবি করছেন, এসব অগ্নিকাণ্ড মানবসৃষ্ট। কৃষির জন্য বন ধ্বংস ও পশু চারণের জন্য আগুন লাগানো হচ্ছে। আর এদের সমর্থন দিচ্ছেন দেশটির উগ্র ডানপন্থি প্রেসিডেন্ট জেইর বলসোনারো। বিভিন্ন স্থানে ভয়াবহ আগুনের কুণ্ডলী সৃষ্টি হওয়ার পর কেন্দ্রীয় সরকারের শরণাপন্ন হয়েছে ছয়টি প্রদেশ। এছাড়া আগুন নিয়ন্ত্রণে সামরিক বাহিনীর সহায়তা চাইছে। এর মধ্যে রন্ডোনিয়া প্রদেশে সামরিক বাহিনীর বিমান থেকে পানি ঢালার কাজ চলমান রয়েছে।
কলম্বো সম্মেলনে দক্ষিণ আমেরিয়ার সাতটি দেশ নতুন বনায়নে কাজ করতে সম্মত হয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। চুক্তিতে দুর্যোগ মোকাবিলা নেটওয়ার্ক ও স্যাটেলাইট নজরদারির কথা বলা হয়েছে। কলম্বোর লেটিসিয়া শহরে এ শীর্ষ সম্মেলন আহ্বান করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইভান দুকে। তিনি বলেন, ‘বৈঠকটি বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ আমাজন অঞ্চলের প্রেসিডেন্টের মধ্যে সমন্বয় সাধনের ব্যবস্থা করবে।’
পেরুর প্রেসিডেন্ট মার্টিন ভিজকারা বলেছেন, ‘এখন আর সদিচ্ছাই যথেষ্ট নয়।’ সম্মেলনে বনভূমি রক্ষার ক্ষেত্রে সচেতনতা বৃদ্ধি আর আদিবাসী সম্প্রদায়ের ভূমিকা বাড়ানোর ব্যাপারে সম্মত হয় সাত দেশ।
বিশ্বের বৃহত্তম গ্রীষ্মমণ্ডলীয় বনাঞ্চল আমাজনের মোট আয়তনের প্রায় ৬০ শতাংশই ব্রাজিলে অবস্থিত। তবে আগুনের রুদ্রমূর্তি শুধু ব্রাজিল অংশের আমাজনে নয়, বরং লাতিন আমেরিকার অন্য দেশগুলোও দেখছে। ভেনেজুয়েলার আমাজনে এ বছর ২৬ হাজারেরও বেশি অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। বলিভিয়া অংশে ১৭ হাজারেরও বেশিবার আগুন লেগেছে। কলম্বিয়াতেও আগুন লেগেছে ১৪ হাজারের বেশিবার।

 

সর্বশেষ..