প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

আরামিট সিমেন্টের শেয়ারপ্রতি আয় কমেছে ১৬৮৭ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সিমেন্ট খাতের কোম্পানি আরামিট সিমেন্ট লিমিটেডের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) কমেছে এক হাজার ৬৮৭ শতাংশ। আজ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রকাশিত চলতি হিসাববছরের প্রথম তিন প্রান্তিকের (জুলাই, ২০২১-মার্চ, ২০২২) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের মাধ্যমে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, চলতি হিসাবছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ, ২০২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে তিন টাকা ৫০ পয়সা (লোকসান), আগের বছর একই সময়ে যা ছিল ৭২ পয়সা। অর্থাৎ তৃতীয় প্রান্তিকে ইপিএস কমেছে চার টাকা ২২ পয়সা বা ৫৮৬ শতাংশ। অন্যদিকে চলতি হিসাববছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জুলাই, ২০২১-মার্চ, ২০২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে সাত টাকা ৬২ পয়সা (লোকসান), আগের হিসাববছরের একই সময়ে যা ছিল ৪৮ পয়সা। সে হিসেবে আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি ইপিএস কমেছে আট টাকা আট পয়সা বা এক হাজার ৬৮৭ শতাংশ। ৩১ মার্চ, ২০২২ শেষে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি  নেট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২১ টাকা ৫৭ পয়সা। আর প্রথম তিন প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে পাঁচ টাকা ২৪ পয়সা।

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ৩০ জুন, ২০২১ সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে বিনিয়োগকারীদের কোনো লভ্যাংশ দেয়নি। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬০ পয়সা। ৩০ জুন, ২০২১ তারিখে শেয়ারপ্রতি নেট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৯ টাকা ১৩ পয়সা। এছাড়া এই হিসাববছরে কোম্পানিটির এনওসিএফপিএস হয়েছে তিন টাকা ১৬ পয়সা।

কোম্পানিটি ১৯৯৮ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘বি’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। তাদের ৫০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৩৩ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট তিন কোটি ৩৮ লাখ ৮০ হাজার শেয়ার রয়েছে। মোট শেয়ারের মধ্যে ৪৫ দশমিক ৯২ শতাংশ উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের, প্রাতিষ্ঠানিক ৯ দশমিক ৬৮ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ৪৪ দশমিক ৪০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।