আজকের পত্রিকা স্পোর্টস

আর্জেন্টিনাকে ২০২২ বিশ্বকাপ এনে দেবেন মেসি

ক্রীড়া ডেস্ক: ক্লাব ফুটবলে প্রায় সবকিছুই অর্জন করেছেন লিওনেল মেসি। কিন্তু আর্জেন্টিনার বেলায় এ হিসেব সম্পূর্ণ ভিন্ন। বলতে গেলে জাতীয় দলকে এখনও বড় কিছু দিতে পারেননি এ তারকা। তবে সাবেক মিডফিল্ডার লুকাস বিলিয়া স্বপ্ন দেখছেন, আর্জেন্টিনাকে ২০২২ বিশ্বকাপ জিতেই বিদায় নেবেন কিং লিও। মূলত শিকাগো বুলস কোচ ফিল জ্যাকসনের ‘দ্য লাস্ট ডান্স সিরিজটা দেখে এমনটাই মনে হয়েছে তার।

রেকর্ড ছয়বার ব্যালন ডি’অর জিতেছেন মেসি। কিন্তু আর্জেন্টিনার জার্সিতে মেসির ট্রফি ক্যালেন্ডারটা এখনো শূন্যই। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপকেই বিশ্বমঞ্চে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের শেষ ভাবা হয়। আগামী ২৪ জুন ৩৩-এ পা দিতে যাওয়া মেসির বয়স ২০২২ বিশ্বকাপের সময় যে ৩৫ পেরিয়ে যাবে! খুব বেশি হলে আগামী বছর হতে যাওয়া কোপা আমেরিকাই হতে পারে আর্জেন্টিনার জার্সিতে তাঁর কিছু জেতার শেষ সুযোগ, এমনই ভাবেন অনেকে। যে কোপা আমেরিকা এবার হওয়ার কথা থাকলেও করোনার কারণে পিছিয়ে গেছে এক বছর।

কিন্তু বিলিয়ার বলছেন ২০২২ বিশ্বকাপে মেসি খেলবেন। শুধু তা-ই নয় তার হাতেই সাবেক এ তারকা দেখছেন বিশ্বকাপ ট্রফিও। রেডিওতে বিলিয়া বলেছেন, মেসিকে নিয়েও এমন সিরিজ দেখার আশায় আছেন তিনি, ‘কদিন আগে দ্য লাস্ট ড্যান্স দেখলাম। দারুণ হয়েছে সিরিজটা। এটা দেখে মনে হলো, কয়েক বছর পর, আশা করি আমরা আমাদের ফেনোমেননকে (মেসি) নিয়েও এমন কিছু দেখতে পাব।’

মেসিকে নিয়ে সিরিজ হলে সবাই আরও ভালো ধারণা পাবেন বলে আশা বিলিয়ার, ‘ওর প্রতিদিনের জীবন থেকে হাজারটা জিনিস শেখার আছে। কারণ আপনি ওকে এখন শুধু অনুশীলন করতে দেখেন, খেলতে দেখেন, কিন্তু প্রতিদিনের জীবনে আরও কত কিছু ঘটে, যেগুলো আমরা জানতে পারি না। যেটা (জর্ডানের ক্ষেত্রে) এই সিরিজে দেখলাম। ভবিষ্যতে যে দৃশ্যটা আমি খুব বেশি করে দেখতে চাই, সেটা জর্ডানের ওই এনবিএ ট্রফি জড়িয়ে ধরে কান্নার মতো। আমি চাই মেসি আর বিশ্বকাপ নিয়ে তেমন কিছু হোক। খুব করেই দেখতে চাই সেটা। জানি ওর জন্য সেটা কত বড় একটা স্বপ্নপূরণ হবে, আর্জেন্টিনার মানুষের জন্যও।’

বার্সায় সাফল্য পাওয়ায় অনেক আর্জেন্টাইনই মেসিকে পছ্ন্দ করেন না। এটা প্রচলিত ধারণাই। কিন্তু বিলিয়ার কথা, আর্জেন্টিনায়ও মানুষ মেসিকে একইরকম ভালোবাসে, ‘দেখুন, ভালো স্মৃতিগুলো সবাই মনে রাখে। খারাপগুলোও। কিন্তু দেখুন, একটা মানুষকেই কেন এত কষ্ট পেতে হবে? গত বিশ্বকাপে (শেষ ষোলোতে) বাদ পড়া ওকে কতটা কষ্ট দিয়েছে সবাই দেখেছে। ওকে এত কষ্ট পেতে দেখে আমার অনেক কষ্ট লেগেছে। প্রশ্নটা মনে জেগেছে, কেন? কেন ওকেই এত কষ্ট পেতে হবে? ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করি, যেন দুবছর পর ওকে আগামী বিশ্বকাপেও দেখি।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..