প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ইউএনডিপির সাবেক কান্ট্রি ডিরেক্টরকে শুল্ক গোয়েন্দায় তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক: শুল্কমুক্ত সুবিধায় গাড়ি এনে অবৈধভাবে বিক্রির অভিযোগে জাতিসংঘ উন্নয়ন সংস্থার (ইউএনডিপি) সাবেক কান্ট্রি ডিরেক্টর স্টিফেন প্রিজনারকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর। এ লক্ষ্যে আগামী ২৯ ডিসেম্বর তাকে শুল্ক গোয়েন্দার কার্যালয়ে তলব করা হয়েছে।

নির্ধারিত দিনে হাজির থাকার জন্য গতকাল শুল্ক গোয়েন্দার পক্ষ থেকে একটি নোটিশ ইস্যু করা হয়। শুল্ক নোটিশের অনুলিপি প্রিজনারকে পৌঁছে দিতে ইউএনডিপির ঢাকা কার্যালয়কে জানানো হয়েছে। শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের  মহাপরিচালক ড. মইনুল খানের সই করা নোটিশে উল্লেখ করা হয়, সম্প্রতি উত্তরার ৪ নম্বর সেক্টরের ১৮ নম্বর সড়কের ৬ নম্বর বাড়ি থেকে আশিকুল হাসিব তারিকের মালিকানায় থাকা একটি গাড়ি জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দার সদস্যরা। এটির নম্বর এজস-০৫৯। গাড়িটির ক্ষেত্রে শুল্ককর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রাথমিক তদন্ত শেষে জানা গেছে, ইউএনডিপিরি সাবেক কান্ট্রি ডিরেক্টরের ওই গাড়িটি শুল্কমুক্ত সুবিধায় আমদানি করা হয়েছিল। কাস্টমস বিধি অনুযায়ী এ ধরনের গাড়ি কাস্টমস কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া বিক্রি করা বা অন্য কারও কাছে হস্তান্তর করা যায় না। এছাড়া আরও প্রমাণিত হয়েছে যে, আশিকুল হাসিব টারিক কিছুদিনের জন্য ইউএনডিপিতে কর্মরত ছিলেন। কিন্তু তিনি শুল্কমুক্ত সুবিধার গাড়ি ব্যবহারের জন্য উপযুক্ত ছিলেন না। তাই তার কাছে এ ধরনের গাড়ি থাকা কাস্টমস বিধির স্পষ্ট লঙ্ঘন। এমন পরিস্থিতিতে শুল্ক গোয়েন্দার তদন্ত দল আগামী ২৯ ডিসেম্বর বিকাল ৩টায় শুনানির আয়োজন করেছে। আপনাকে (স্টিফেন প্রিজনার) ওই তদন্ত দলের সম্মুখে হাজির হওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ড. মইনুল খান শেয়ার বিজকে বলেন, শুল্কমুক্ত সুবিধায় আনা স্টিফেন প্রিজনারের ব্যবহৃত গাড়িটি কীভাবে অন্য একজনের মালিকানায় গেলো, সে বিষয়টি জানার জন্য তদন্ত কাজের অংশ হিসেবে প্রিজনারকে তলব করা হয়েছে।