পর্ষদ সভা

ইবনে সিনা ফার্মাসিউটিক্যালের পর্ষদ সভা ১৯ সেপ্টেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক: ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি দি ইবনে ফার্মাসিউটিক্যাল ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ সভা আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
প্রাপ্ত তথ্যমতে, আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর বেলা সাড়ে ৩টায় পরিচালনা পর্ষদ সভায় কোম্পানিটির ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।
এদিকে গতকাল কোম্পানিটির শেয়ারদর চার দশমিক ১২ শতাংশ বা ১১ টাকা ১০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ২৮০ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ২৮১ টাকা ৫০ পয়সা। ওইদিন কোম্পানিটির ১৭ কোটি ২৫ লাখ ৪৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দিনজুড়ে ছয় লাখ ১৪ হাজার ৭২৮টি শেয়ার মোট তিন হাজার ৭০৬ বার হাতবদল হয়। ওইদিন শেয়ারদর সর্বনিম্ন ২৭০ টাকা ১০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৯০ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে কোম্পানির শেয়ারদর ২৩১ টাকা ১০ পয়সা থেকে ৩৩৩ টাকা ৬০ পয়সায় ওঠানামা করে।
সম্প্রতি কোম্পানিটির ঋণমান অবস্থান (ক্রেডিট রেটিং) নির্ণয় করেছে আলফা ক্রেডিট রেটিং লিমিটেড (আলফা রেটিং)। তথ্যমতে, কোম্পানিটি দীর্ঘ মেয়াদে রেটিং পেয়েছে ‘এ প্লাস’। আর স্বল্প মেয়াদে পেয়েছে ‘এসটি-২’। ৩০ জুন ২০১৬ থেকে ৩০ জুন ২০১৮ পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন এবং চলতি বছরের ৮ জুলাই পর্যন্ত অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্যের আলোকে এ রেটিং সম্পন্ন হয়েছে।
ওষুধ ও রসায়ন খাতের ‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি ১৯৮৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি ৩০ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৫ টাকা ৯২ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৪৩ টাকা ২১ পয়সা। এর আগের বছরও কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের ২৫ শতাংশ নগদ ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল। ওই সময় ইপিএস হয়েছিল ৯ টাকা ছয় পয়সা ও ৪২ টাকা ৭৯ পয়সা। যা তার আগের বছর একই সময় ছিল ১১ টাকা ৪৪ পয়সা ও ৩৮ টাকা ৭২ পয়সা। ২০১৮ সালে মোট মুনাফা করে ৪৫ কোটি ২৩ লাখ টাকা। যা আগের বছর ছিল ২৩ কোটি ৩৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা।
৫০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৩১ কোটি ২৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট তিন কোটি ১২ লাখ ৪৩ হাজার ৬২৮টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৪৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক ১৯ দশমিক ৭১ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ৩৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ শেয়ার। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় (পিই) অনুপাত ১৭ দশমিক ৬৮ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ২৬ দশমিক ৫৬।

 

সর্বশেষ..