বিশ্ব সংবাদ

ইরানের ওপর আরোপিত অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ইরানের ওপর আরোপিত জাতিসংঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা গতকাল রোববার স্বয়ংক্রিভাবে উঠে গেছে। এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি প্রকাশ করেছে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইরান কোনো আইনগত বাধা ছাড়াই যে কোনো দেশ থেকে নিজেদের প্রয়োজন মতো অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম কিনতে এবং যে কোনো দেশের কাছে তা বিক্রি করতে পারবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, ‘বিশ্বের জন্য আজকের দিনটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ যুক্তরাষ্ট্রের প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ইরানের পরমাণু সমঝোতা ও জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব রক্ষা করেছে। এ প্রস্তাবে স্পষ্ট বলা হয়েছে যে, ২০২০ সালের ১৮ অক্টোবর ইরানের ওপর থেকে স্বয়ংক্রিয় ও নিশ্চিতভাবে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে ঘটা করে কোনো ঘোষণা দেওয়ার প্রয়োজন নেই।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতিবাদ উপেক্ষা করে ইরানবিরোধী পদক্ষেপ নেওয়ার প্রচেষ্টা থেকে বিরত থাকার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রসহ ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ২০১৫ সালে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা ও নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব অনুযায়ী, রোববার তেহরানের স্থানীয় সময় ভোররাত সাড়ে ৩টায় ইরানের ওপর থেকে জাতিসংঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে।

এর মাধ্যমে ইরানের বিরুদ্ধে কথিত সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের মার্কিন প্রচেষ্টা আরেকবার সম্পূর্ণ ব্যর্থতার মুখোমুখি হলো। ইরানের ওপর এই নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখতে যুক্তরাষ্ট্র জাতিসংঘকে আহ্বান জানিয়েছিল। এছাড়াও বিভিন্ন দেশকে এ বিষয়ে চাপ প্রয়োগ করা হয়েছে।

ইরান দাবি করেছে তারা প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে স্বনির্ভর, তাদের আর অস্ত্র কিনতে হবে না। এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ইরান বলছে, ‘ইরানের প্রতিরক্ষা মতাদর্শ দেশটির জনগণ ও দেশীয় সক্ষমতার ওপর নির্ভর করে গড়ে উঠেছে। অপ্রচলিত অস্ত্র, গণবিধ্বংসী অস্ত্র ও প্রচলিত অস্ত্র কেনার তাগিদ ইরানি প্রতিরক্ষা মতাদর্শে নেই।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..