বিশ্ব সংবাদ

ইরানে হামলার পরিকল্পনা জোরদার ইসরাইলের

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ইরানের সঙ্গে করা পারমাণবিক চুক্তিতে যেকোনোভাবে যুক্তরাষ্ট্রের ফিরে আসাটা ভুল হবে বলে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনকে সতর্ক করেছে ইসরাইলে। একই সঙ্গে ইরানে হামলার পরিকল্পনা জোরদার করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটি। ইসরাইলের দেশটির সামরিক বাহিনীর প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবিব কোহাবি গত মঙ্গলবার এ ঘোষণা দেন। খবর : রয়টার্স।

তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব ন্যাশনাল স্টাডিজে দেয়া ভাষণে আবিব কোহাবি বলেন, প্রতিরক্ষা বাহিনীকে আমি ইরানের হামলার ব্যাপারে বিদ্যমান পরিকল্পনার পাশাপাশি বাড়তি অনেকগুলো অভিযান পরিকল্পনা তৈরির নির্দেশনা দিয়েছি। এগুলো বাস্তবায়নের বিষয়টি রাজনৈতিক নেতৃত্বের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করলেও এসব পরিকল্পনা তৈরি থাকা প্রয়োজন।

ইরানের বিরুদ্ধে দ্রুত গতিতে পারমাণবিক অস্ত্র নির্মাণের দিকে অগ্রসর হওয়ারও অভিযোগ করেন জেনারেল আবিব কোহাবি। ফলে তেহরানের সঙ্গে করা পারমাণবিক চুক্তিতে যেকোনোভাবে ফিরে যাওয়া যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ভুল হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। দাবি করেন, নতুন করে একই ধরনের সমঝোতা করা হলে সেটিও হবে কৌশলগতভাবে ভুল সিদ্ধান্ত।

দৃশ্যত নিজ দেশের সরকারের অনুমোদন নিয়েই এসব মন্তব্য করলেন ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর প্রধান। এর মধ্য দিয়ে তেহরানের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রশাসনের কাছে ইসরাইলের বার্তা পৌঁছে দিলেন তিনি। তেল আবিব চাইছে, বাইডেন প্রশাসন যেন কোনোভাবেই তেহরানের সঙ্গে নতুন করে কোনো কূটনৈতিক সম্পর্কে না জড়ায়।

ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর প্রধান এমন সময়ে এসব মন্তব্য করলেন, যার কদিন আগেই যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রচ্ছন্ন সহযোগিতার ইঙ্গিত দেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। এক সাক্ষাৎকারে জারিফ বলেন, ‘আমার ব্যক্তিগত মত হলো যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক নির্দিষ্ট করা উচিত। ওয়াশিংটনকে বলা দরকার যে, ইসরাইল ইস্যুতে আমরা সঙ্গে কোনো সহযোগিতা করব না। আমাদের ভিন্নমত থাকবে। অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপও বরদাশত করা হবে না। তবে তেলের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ করতে কোনো সমস্যা নেই। এমনকি উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা ইস্যুতে একযোগে কাজ করার ক্ষেত্রেও কোনো সংকট নেই’

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তি থেকে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সরে গেলে তেহরানের সঙ্গে ওয়াশিংটনের সম্পর্কের অবনতি হয়। ইরানের বিরুদ্ধে পুরোনো অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আবারও জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। এতে ইরানের অর্থনীতি সংকটে পড়ে। তবে নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ইরান যদি কঠোরভাবে মেনে চলে তাহলে ওয়াশিংটন পারমাণবিক চুক্তিতে ফিরবে। এমন পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার তেহরানের ব্যাপারে নিজ দেশের এমন তীর্যক মন্তব্য করেন ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর প্রধান।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..