ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে চার ফিলিস্তিনি নিহত

শেয়ার বিজ ডেস্ক: দখলকৃত পশ্চিম তীরে অভিযান চালিয়ে চার ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরাইলি বাহিনী। গতকাল রোববার রামাল্লাহ ও জেনিন শহরের কাছে আলাদা স্থানে অভিযান পরিচালনা করে ইসরাইল। খবর: বিবিসি, রাশিয়া ট্যুডে।

ইসরাইলের সেনাবাহিনীর দাবি, ফিলিস্তিনিদের নিহত হওয়ার জবাবে গাজা উপত্যকা থেকে রকেট হামলার পরিকল্পনা করছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস। আর ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তিন ফিলিস্তিনি নিহত হন কাফর বিদু এলাকায়। তাদের মরদেহ আটকে রেখেছে ইসরাইলের বাহিনী। আরেকজনকে বুরকিনে হত্যা করা হলেও তাকে এরই মধ্যে দাফন করা হয়েছে।

জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে যাওয়ার পথে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেন্নেট দাবি করেন, ইসরাইলের বাহিনী পশ্চিম তীরে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে। তারা রকেট হামলা চালানোর চেষ্টা করছিল। এ বিষয়ে এখনও হামাসের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

ইসরাইল-আমিরাতের গোপন চুক্তির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ: এদিকে ইসরাইল ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সম্প্রতি গোপন একটি তেল চুক্তি হয়। ওই চুক্তির বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে শত শত মানুষ বিক্ষোভ করেন। কয়েকটি পরিবেশবাদী সংগঠনের উদ্যোগে গতকাল এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে গত ১৪ আগস্ট এপির এক প্রতিবেদনে এ চুক্তির খবর প্রকাশের পর পরিবেশবাদী সংগঠনগুলো এর বিরুদ্ধে জনসচেতনতা তৈরিতে মাঠে নামে। ইসরাইল ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সই হওয়া চুক্তি অনুসারে অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের এইলাত সমুদ্রবন্দরকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের তেল রপ্তানির গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে পরিণত করা হবে। সেখান থেকেই পশ্চিমা দেশগুলোর বাজারে যাবে আমিরাতের তেল। কিন্তু পরিবেশবাদীরা বলছেন, এতে ওই এলাকার পরিবেশগত বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েছে।

এদিকে ফিলিস্তিনের দখলকৃত অঞ্চল ছাড়তে ইসরাইলকে এক বছরের সময় দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। যদি ইসরাইল এতে ব্যর্থ হয়, তাহলে তাদের স্বীকৃতি প্রত্যাহারেরও হুমকি দিয়েছেন তিনি। শুক্রবার জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে ভার্চুয়াল বক্তব্যের সময় ইসরাইলের বিরুদ্ধে এ হুশিয়ারি দেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট।

মাহমুদ আব্বাস বলেন, যদি ফিলিস্তিনের অধিকৃত অঞ্চল ছেড়ে যেতে ইসরাইল অস্বীকৃতি জানায়, তবে তিনি আর ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেবেন না।

সর্বশেষ..