সুস্বাস্থ্য

উত্তম স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন

স্বাস্থ্য নিয়ে সবারই সচেতন হওয়া উচিত, কারণ স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল। সুস্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য সহজ কয়েকটি নিয়ম মেনে চলতে পারেন। তাহলেই স্বাস্থ্য ভালো রাখা সম্ভব:
# প্রতিদিন কমপক্ষে এক থেকে দুই লিটার পানি পান করা উচিত। পানি শরীরের জন্য উপকারী। তবে মিষ্টিজাতীয় পানি পান থেকে বিরত থাকতে হবে। অর্থাৎ কোমলপানীয় পান না করাই ভালো
# উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস প্রভৃতি রোগ এড়াতে লবণ ও চিনি খাওয়ার বেলায় পরিমিতিবোধ বজায় রাখা উচিত। এছাড়া লক্ষ রাখতে হবে, খাওয়ার চিনি যাতে ব্রাউন ও লবণ যেন আয়োডিন-ফ্লোরাইডযুক্ত হয়
# প্রতিদিন খাবারের তালিকার দুধ রাখা উচিত। দুধে রয়েছে শরীরের জন্য উপকারী ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ। তবে অ্যালার্জিজনিত কারণে অনেকে দুধ খেতে পারেন না। সেক্ষেত্রে দুধের তৈরি অন্য কোনো খাবার খাওয়া যেতে পারে
# মানুষের মস্তিষ্কের সঠিক বিকাশের জন্য প্রয়োজন শর্করা ও গ্লুকোজ। এ উপাদানগুলো বিভিন্ন ফল, রুটি, মিষ্টিআলু, নুডলস, মাছ-মাংস প্রভৃতিতে রয়েছে। তাই এসব খাবারের যেকোনো একটি অল্প পরিমাণে নিয়মিত খাওয়া জরুরি। এতে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় মৌলিক উপাদান পূরণ করা সম্ভব। ডিমের কুসুমও মস্তিষ্কের জন্য উপকারী
# কাঠবাদাম বা অন্য যে কোনো বাদাম শরীরের জন্য উপকারী। দেখা গেছে, সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন নানা ধরনের বাদাম খেলে হƒদরোগ থেকে দূরে থাকা যায়
# প্রতিদিন খাবারের তালিকায় শিম, মটরশুঁটি, বরবটির মতো আঁশযুক্ত সবজি রাখতে হবে। এসব উপাদান শরীরের চিনি নিয়ন্ত্রণে যেমন সাহায্য করে, তেমনি হƒদরোগ প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে। বাঁধাকপি ও ফুলকপি ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে সহায়ক। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, প্রতিদিন শাকসবজি ও ফলমূল খাওয়া উচিত। এসব খাবার হাঁপানি বা অ্যালার্জির ঝুঁকিও কমায়
# নানা গুণের অধিকারী মধু। গলাব্যথা, মানসিক চাপ, রক্তস্বল্পতা, অস্টিওপোরেসিস ও মাইগ্রেনসহ নানা শারীরিক সমস্যায় মধু বিশেষভাবে কার্যকর
# মৌরি ত্বকের যত্নে বেশ উপকারী। তাই সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য প্রতিদিন মৌরি চিবিয়ে খান। এতে খুব কম সময়ে রক্ত শুদ্ধ হয়ে ত্বক উজ্জ্বল হবে
# মাথাব্যথা থেকে মুক্তি পেতে মাছ খেতে পারেন। মাছের তেল মাথাব্যথা প্রতিরোধে কার্যকর। এছাড়া ব্যথা নিরাময়ে সরাসরি আদা কিংবা গরম পানিতে আদা ফুটিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়
# ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সরিষার তেলের সঙ্গে রসুন গরম করে খেতে পারেন। এতে অনেকটা উপকার পাওয়া যায়
# মাশরুমকে সুপারফুড বলা হয়। মাশরুমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন ও ভিটামিন। চিকিৎসকেরা রোগীদের বেশি করে মাশরুম খাওয়ার পরামর্শ দেন। ব্রেস্ট ক্যানসার প্রতিরোধে এটি খুব উপকারী।

সর্বশেষ..