প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

উত্তর মেরুতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড

শেয়ার বিজ ডেস্ক: উত্তর মেরুর (আর্কটিক) তাপমাত্রা বাড়ছে। গ্রীষ্মকালে তুষারাচ্ছাদিত এ অঞ্চলে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা থাকার কথা, সেখানে প্রায় দুই বছর ধরে তাপমাত্রা উঠছে ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপর। এমনকি সার্বিয়ায় গত বছর ৩৮ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। খবর: আল জাজিরা।

জাতিসংঘের জলবায়ু-বিষয়ক সংস্থা ওয়ার্ল্ড মেটেরোলজিক্যাল অরগানাইজেশনের (ডব্লিউএমও) বরাত দিয়ে গতকাল এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে আল জাজিরা।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত বছর জুন ছিল উত্তর মেরুর ইতিহাসে উষ্ণতম মাস। সেদিন বিশ্বের শীতলতম স্থান বলে পরিচিত রাশিয়ার ভরখয়ানাস্ক শহরে তাপমাত্রা উঠেছিল ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাশিয়ার বিস্তৃত ভূখণ্ড সাইবেরিয়ার একটি শহর। উত্তর মেরুর মূল কেন্দ্র আর্কটিক থেকে এ শহরের দূরত্ব ১১৫ কিলোমিটার।

ডব্লিউএমও জানিয়েছেন, বিশ্বের অন্যান্য অংশের তুলনায় উত্তর মেরুর আবহাওয়ার পরিবর্তন হচ্ছে দ্রুতগতিতে। এ অঞ্চলের তাপমাত্রা দ্বিগুণের বেশি বেড়েছে। এ কারণে এখানকার জমাট বরফ ও সাগরের বাস্তুসংস্থান ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

দীর্ঘমেয়াদে তাপপ্রবাহ ও দাবানল এ অস্বাভাবিক তাপমাত্রা সৃষ্টি করছে। অদূর ভবিষ্যতে উচ্চমাত্রার তাপপ্রবাহ, ঝড়, দাবানালসহ কিছু প্রাকৃতিক দুর্যোগ আঘাত হানতে পারে এখানে।

ডব্লিউএমওর মহাপরিচালক পেট্টেরি তালাস এক টুইট বার্তায় বলেন, আর্কটিক অঞ্চলের আবহাওয়ার ধারাবাহিক পরিবর্তন আমরা মনোযোগ দিয়ে পর্যবেক্ষণ করছি। পর্যবেক্ষণ বলছে, উত্তরমেরুর সাম্প্রতিক আবহাওয়াচিত্র আমাদের জন্য বিপদের ঘণ্টা বাজিয়ে চলেছে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সামনে বিশ্বজুড়ে যে বিপর্যয় আসতে যাচ্ছে, তারই আভাস পাওয়া যাচ্ছে এখানে আবহাওয়া পরিস্থিতিতে।

তবে আবহাওয়ার এ পরিবর্তনের কারণ ও তা প্রতিরোধে করণীয় নিয়ে এরই মধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। এ-সংক্রান্ত নানা তথ্য সংগ্রহ করে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। সংগৃহীত তথ্য পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

এদিকে উত্তর মেরুর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দক্ষিণ মেরুর (অ্যান্টার্কটিকা) তাপমাত্রাও। গত বছর জুনে অ্যান্টার্কটিকার তাপমাত্রা উঠেছিল ১৮ দশমিক তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা এখন পর্যন্ত ওই অঞ্চলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড।

সেদিন আর্জেন্টিনার এসপারানজা স্টেশনে এ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। একই সময় যুক্তরাষ্ট্রের ডেথ ভ্যালির তাপমাত্রাও রেকর্ড করে ডব্লিউএমও। তখন ইতালির সিসিলিতে ৪৮ দশমিক আট ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।