কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

উভয় বাজারে লেনদেন ও সূচকের পতন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই), উভয় বাজারে গতকাল লেনদেন এবং সূচকের পতন হয়েছে। প্রায় দুই মাস পুঁজিবাজার বন্ধ থাকার পর গত রোববার উভয় বাজারের পুনরায় লেনদেন শুরু হয় এবং লেনদেন শুরুর দ্বিতীয় দিন থেকে ধারাবাহিকভাবে বাজারের পতন হচ্ছে। গতকাল বেশিরভাগ শেয়ারের দর অপরিবর্তিত ছিল। তবে বাকি শেয়ারগুলোর মধ্যে অধিকাংশের দর কমায় সব কয়টি সূচকের পতন হয়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল লেনদেনের শুরুতে শেয়ার কেনার চাপ ধারাবাহিকভাবে বাড়ার প্রেক্ষিতে সূচকও ধীরে ধীরে নি¤œমুখী হতে থাকে। শেষ পর্যন্ত সূচকের পতন অব্যাহত থাকে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ছয় দশমিক ১৭ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১৫ শতাংশ কমে তিন হাজার ৯৬৩ দশমিক ৪০ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক এক দশমিক ২০ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১৩ শতাংশ কমে ৯১৮ দশমিক ৯৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক এক দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ১৫ শতাংশ কমে এক হাজার ৩২৮ দশমিক ৫০ পয়েন্টে স্থির হয়।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় ১৫২ কোটি ৬৩ লাখ ৫৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ১৫৫ কোটি ২৪ লাখ ২২ হাজার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে দুই কোটি ৬০ লাখ ৬৯ হাজার টাকা। এদিন দুই কোটি ২৪ লাখ ৩৩ হাজার ৪৯৭টি শেয়ার ১৩ হাজার ১৩৮ বার হাতবদল হয়। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন প্রায় ৩১৬ কোটি টাকা কমে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ১০ হাজার ৩৬৫ কোটি ৪৭ লাখ ৫২ হাজার টাকায়। 

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে গ্রামীণফোন লিমিটেড। কোম্পানিটির ছয় কোটি ৮১ লাখ ৪৬ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর কমেছে এক টাকা ১০ পয়সা। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মার চার কোটি ৪৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে এক টাকা ১০ পয়সা। বেক্সিমকোর তিন কোটি ৯৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর অপরিবর্তীত। এরপরের অবস্থানগুলোতে থাকা স্কয়ার ফার্মার তিন কোটি ১৪ লাখ টাকার, আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংকের দুই কোটি ১৫ লাখ, এক্সিম ব্যাংকের এক কোটি ৬২ লাখ, ইন্দো বাংলা ফার্মার এক কোটি ৫৬ লাখ, ওরিয়ন ফার্মার এক কোটি ৫০ লাখ টাকার, ইসলামী ব্যাংকের এক কোটি ৩৮ লাখ এবং মুন্নু সিরামিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের এক কোটি ৩১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

দুই দশমিক ৪৩ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে ছিল এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড। ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারদর দুই দশমিক শূন্য তিন শতাংশ, এনসিসি ব্যাংকের এক দশমিক ৭০ শতাংশ, এপেক্স ফুটওয়্যারের শূন্য দশমিক ৯১ শতাংশ, পিপলস ইন্স্যুরেন্সের শূন্য দশমিক ৬৫ শতাংশ, সিলকো ফার্মার শূন্য দশমিক ৪৪ শতাংশ, লিন্ডে বাংলাদেশের শূন্য দশমিক ৩৬ শতাংশ এবং মতিন স্পিনিংয়ের শূন্য দশমিক ৩০ শতাংশ বেড়েছে।   

অন্যদিকে সাত দশমিক ২০ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে উঠে আসে দুলামিয়া কটন স্পিনিং মিলস লিমিটেড। মার্কেন্টাইল ব্যাংকের দর পাঁচ দশমিক ৩৫ শতাংশ, বিডি ওয়েল্ডিংয়ের দর চার দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ, এসিআইয়ের দর তিন দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ, সেন্ট্রাল ফার্মার দর তিন দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ, মেঘনা পিইটির দর দুই দশমিক শূন্য আট শতাংশ, প্রাইম ইন্স্যুরেন্সের দর এক দশমিক ৭২ শতাংশ কমেছে।  মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্সের এক দশমিক ৬০ শতাংশ কমেছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ১৯ দশমিক শূন্য চার পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ২৭ শতাংশ কমে ছয় হাজার ৮০৪ দশমিক ২৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৯ দশমিক ৮০ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ২৬ শতাংশ কমে ১১ হাজার ২৩১ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ১২৭টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ১৪টির, কমেছে ৩২টির এবং ৮১টির দর অপরিবর্তিত ছিল। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে তিন কোটি ৬০ লাখ ২৩ হাজার ১৩৬ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫৬ কোটি ৬৫ লাখ ৮৩ হাজার ৫৯৯ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে প্রায় ৫৩ কোটি টাকা।

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল ভিএফএস থ্রেড ডায়িং লিমিটেড। কোম্পানিটির এক কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। বেক্সিমকোর ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপরে স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালসের ২৩ লাখ টাকার, বেক্সিমকো ফার্মার ১৪ লাখ, গ্রামীণফোনের ১৪ লাখ, এক্সিম ব্যাংকের ৯ লাখ ও মুন্নু সিরামিকের সাত লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..