কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

উভয় বাজারে সূচক ও লেনদেন বেড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: গতকাল বুধবার সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) উভয় বাজারে সূচক ও লেনদেন বেড়েছে। এদিন বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। বাকি শেয়ারের মধ্যে বেশিরভাগ শেয়ারের দর বাড়ায় সূচক ও লেনদেন বেড়েছে। গতকাল বাজারে লেনদেন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বাজারের উত্থানের চিত্র দেখা গেছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র লক্ষ্য করা গেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৩২ দশমিক ৮৩ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৮২ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ৩৪ দশমিক ৬৫ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক চার দশমিক ৭৯ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৫১ শতাংশ বেড়ে ৯২৮ দশমিক ৬৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ১১ দশমিক শূন্য দুই পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৮১ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৩৫৭ দশমিক ৫০ পয়েন্টে স্থির হয়।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় ২৩১ কোটি ৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ১৩৮ কোটি ৫৬ লাখ ৫৫ হাজার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ৯২ কোটি ৪৯ লাখ ৩০ হাজার টাকার। এদিন ৯ কোটি ৭৯ লাখ ৭২ হাজার ৭৩৯টি শেয়ার ৪৯ হাজার ৯৯৪ বার হাতবদল হয়।

এদিন মোট ৩৪২টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১০১টির এবং কমেছে ২৩টির। বাকি ২১৮টি কোম্পানির শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন এক হাজার ২২৩ কোটি ৩২ লাখ ৭২ হাজার টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ১৩ হাজার ৫১৭ কোটি ৬৩ লাখ ৫ হাজার টাকায়।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। কোম্পানিটির ১৭ কোটি ৯ লাখ ৮৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর এক টাকা বেড়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বাংলাদেশে এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) লিমিটেডের ১১ কোটি ৮৯ লাখ এক হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর ৩০ পয়সা বেড়েছে। বীকন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৯ কোটি ১২ লাখ ৩৯ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর ছয় টাকা ১০ পয়সা বেড়েছে। এরপরের অবস্থানগুলোয় থাকা প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের ৬ কোটি ৯১ লাখ ২৩ হাজার টাকার, ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেডের ৬ কোটি ৮৮ লাখ ৮৭ হাজার টাকার, ওরিয়ন ইনফিউশনস লিমিটেডের ৬ কোটি ৬১ লাখ ৪৩ হাজার টাকার, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৬ কোটি ৩৫ লাখ ১৭ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানি লিমিটেডের ৪ কোটি ৬১ লাখ ৮৩ হাজার টাকার, এক্সপোর্ট ইমপোর্ট (এক্সিম) ব্যাংক অব বাংলাদেশ লিমিটেডের ৪ কোটি ৪৯ লাখ ৪৬ হাজার টাকার এবং ওয়াটা কেমিক্যালস লিমিটেডের চার কোটি ২০ লাখ ৪০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে ছিল জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ, বীকন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের ৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের ৮ দশমিক ৪৯ শতাংশ, ঢাকা ইন্স্যুরেন্সের ৭ দশমিক ৩৭ শতাংশ, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের ৬ দশমিক ৮৩ শতাংশ, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেডের ৬ দশমিক ৬৬ শতাংশ, পূরবী জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের ৬ দশমিক ৫৬ শতাংশ এবং জিকিউ বলপেন ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৬ দশমিক ২০ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে ৮ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে উঠে আসে দি ঢাকা ডায়িং অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি লিমিটেড। মেঘনা পিইটি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের দর ৪ দশমিক ৩৪ শতাংশ, জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশনস লিমিটেডের দর ৪ দশমিক ১৬ শতাংশ, গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন (জিএসকে) বাংলাদেশ লিমিটেডের ৪ দশমিক ১৩ শতাংশ, এপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেডের ৩ দশমিক ০৩ শতাংশ, তাল্লু স্পিনিং মিলস লিমিটেডের ৩ দশমিক ০৩ শতাংশ, পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৩ দশমিক ০১ শতাংশ, মিথুন নিটিং অ্যান্ড ডায়িং লিমিটেডের ২ দশমিক ৮৯ শতাংশ, জাহিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ২ দশমিক ৭০ শতাংশ এবং পূবালী ব্যাংক লিমিটেডের শেয়ারদর দুই দশমিক ৫৪ শতাংশ কমেছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ৫১ দশমিক ২৮ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৭৪ শতাংশ বেড়ে ছয় হাজার ৯৩৩ দশমিক ৫৯ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৮৪ দশমিক ৩৬ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৭৪ শতাংশ বেড়ে ১১ হাজার ৪৪৮ দশমিক ৯৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ১৬৩টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ৬৬টির, কমেছে ১১টির এবং ৮৬টির দর অপরিবর্তিত ছিল। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫ কোটি ২২ লাখ ৬২ হাজার ৮৭৫ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩ কোটি ৫৮ লাখ ১১ হাজার ৪২৫ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে এক কোটি ৬৪ লাখ ৫১ হাজার ৪৪৯ টাকার।

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল এক্সপোর্ট ইমপোর্ট (এক্সিম) ব্যাংক অব বাংলাদেশ লিমিটেড। কোম্পানিটির ৬৯ লাখ ১০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেডের ৪৩ লাখ ৩০ হাজার টাকার এবং এরপরের অবস্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের লিমিটেডের ২৯ লাখ ২০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের ২৪ লাখ টাকার, ইন্দো-বাংলা ফার্মার ১৯ লাখ ৮০ হাজার টাকার, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর ১৮ লাখ ১০ হাজার টাকার, বীকন ফার্মার ১৬ লাখ টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানি লিমিটেডের ১৫ লাখ ২০ হাজার টাকার, ন্যাশনাল ব্যাংকের ১৫ লাখ ১০ হাজার টাকার এবং প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের ১৪ লাখ ২০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..