কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

উভয় বাজারে সূচক ও লেনদেনের উত্থান

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) উভয় বাজারে গতকাল মঙ্গলবার সূচক ও লেনদেন আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। এদিন বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছে। গতকাল বাজারে লেনদেন শুরুর আধা ঘণ্টা পর বাজারের পতন হয়; তবে লেনদেন বাড়ার সঙ্গে সূচকের গতি ঊর্ধ্বমুখী হতে শুরু করে এবং শেষ পর্যন্ত উত্থানের চিত্র দেখা যায়। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র লক্ষ্য করা গেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৭ দশমিক ২৯ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৬৩ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ২৯৯ দশমিক ১০ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ৬ দশমিক ৫৭ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৬৬ শতাংশ বেড়ে ৯৯৯ দশমিক ৭১ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএসই৩০ সূচক ১২ দশমিক ০৯ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৮৩ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৪৫৪ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে স্থির হয়।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় ৬৭৬ কোটি ৬৫ লাখ ৮৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৬৭২ কোটি ৩৬ লাখ ২৫ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে চার কোটি ২৯ লাখ ৫৮ হাজার টাকার। এদিন ২৫ কোটি ৮ লাখ ৬৯ হাজার ৭৬৮টি শেয়ার এক লাখ ৫১ হাজার ৮৬৭ বার হাতবদল হয়।

এদিন মোট ৩৫৪টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১৪৭টির এবং কমেছে ১১৬টির। বাকি ৯১টি কোম্পানির শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ২৪ হাজার ৪৫৩ কোটি টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৩১ হাজার ২৩৬ কোটি দুই লাখ ৮৭ হাজার টাকায়।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটির ২৪ কোটি ২ লাখ ৫৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৫ টাকা ৭০ পয়সা বেড়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ২১ কোটি ১৮ লাখ ৫২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারদর ৬০ পয়সা কমেছে। স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ২০ কোটি ১০ লাখ ২২ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর ৪০ পয়সা কমেছে। এরপরের অবস্থানগুলোয় থাকা লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেডের ১৬ কোটি ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার, গ্রামীণফোন লিমিটেডের ১৬ কোটি ১০ লাখ তিন হাজার টাকার, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ১২ কোটি ১০ লাখ ৬১ হাজার টাকার, অ্যাকটিভ ফাইন কেমিক্যালস লিমিটেডের ১০ কোটি ৩১ লাখ ৪০ হাজার টাকার, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডের ১০ কোটি ১০ লাখ ২৭ হাজার টাকার, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ৯ কোটি ৭২ লাখ ৫২ হাজার টাকার এবং সিলকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৯ কোটি ৫১ লাখ ৯২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে ছিল ফাস ফাইন্যান্স লিমিটেড। পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ, রূপালী ব্যাংক লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৩ শতাংশ, সিলকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৯ দশমিক ৭৫ শতাংশ, অ্যাকটিভ ফাইন কেমিক্যালস লিমিটেডের ৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ, পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৬০ শতাংশ, আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের ৮ দশমিক ২৩ শতাংশ, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৮ দশমিক ০৭ শতাংশ, রহিম টেক্সটাইল লিমিটেডের ৭ দশমিক ৯২ শতাংশ এবং ফিনিক্স ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৭ দশমিক ৮৮ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে ৫ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে উঠে আসে সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের দর ৪ দশমিক ৯৩ শতাংশ, প্রাইম টেক্সটাইলের দর ৪ দশমিক ৯০ শতাংশ, প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৪ দশমিক ৭৩ শতাংশ, ড্রাগন সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং লিমিটেডের ৪ দশমিক ৬২ শতাংশ, জিকিউ বলপেন ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৪ দশমিক ৫৬ শতাংশ, আলিফ ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেডের ৪ দশমিক ২৮ শতাংশ এবং ঢাকা ডায়িংয়ের ৪ দশমিক ২৫ শতাংশ, কাট্টলী টেক্সটাইল লিমিটেডের ৩ দশমিক ৮৮ শতাংশ শেয়ারদর কমেছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ৩৭ দশমিক ২২ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ বেড়ে ৭ হাজার ৩৮৫ দশমিক শূন্য এক পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৬৪ দশমিক ৪০ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৫৩ শতাংশ বেড়ে ১২ হাজার ১৮৬ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ২৫৪টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ৯৮টির, কমেছে ৮৬টির এবং ৭০টির দর অপরিবর্তিত ছিল। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৭ কোটি দুই লাখ ছয় হাজার ৩১৭ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ১৩ কোটি ৮৩ লাখ ৯ হাজার ৩১৩ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে তিন কোটি ১৮ লাখ ৯৭ হাজার টাকার।

সিএসইতে এদিন লেনদেনের শীর্ষে ছিল মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটির ২ কোটি ৬১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপরের অবস্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের এক কোটি টাকার, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেডের ৫৪ লাখ ৩০ হাজার টাকার, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৫২ লাখ ৯০ হাজার টাকার, এসএস স্টিলের ৪৯ লাখ টাকার, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের ৪৬ লাখ ৬০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..