কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

উভয় বাজারে সূচক ও লেনদেন বেড়েছে

সিংহভাগ কোম্পানির দরবৃদ্ধি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ারদর বাড়ায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) উভয় বাজারে গতকাল বৃহস্পতিবার সূচক ও লেনদেন বেড়েছে। গতকাল সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে বাজারে লেনদেন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সূচকের উত্থানের চিত্র দেখা যায়। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৭ দশমিক ৬৭ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৩৩ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ৩৬৪ দশমিক ৮৩ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ১৩ দশমিক ৬৮ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৩৭ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ১১ দশমিক ১০ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ২৩ দশমিক ৪৬ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৬১ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৪৭৫ দশমিক ৮৭ পয়েন্টে স্থির হয়।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় ৮৩৬ কোটি ৫৩ লাখ ৮৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৭১৮ কোটি ৩৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১১৮ কোটি ১৯ লাখ ৪০ হাজার টাকার। এদিন ৩১ কোটি ৫৮ লাখ ৪৬ হাজার ৬২৬টি শেয়ার এক লাখ ৬৬ হাজার ২৪১ বার হাতবদল হয়।

এদিন মোট ৩৫৩টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ২১৯টির এবং কমেছে ৭৯টির। বাকি ৫৫টি কোম্পানির শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন এক হাজার ৮০৩ কোটি ৪৫ লাখ ১৯ হাজার টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৩৩ হাজার ৬৮৫ কোটি ৯৩ লাখ ৮৩ হাজার টাকায়।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। কোম্পানিটির ৪৩ কোটি ১১ লাখ ২৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৫ টাকা ৩০ পয়সা বেড়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানি লিমিটেডের ৩০ কোটি ৯২ লাখ ২৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারদর ১১ টাকা ৪০ পয়সা বেড়েছে। পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ২৬ কোটি ১৮ লাখ ৯ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর ৫ টাকা ২০ পয়সা কমেছে। এরপরের অবস্থানগুলোয় থাকা বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) লিমিটেডের ২৩ কোটি ২৫ লাখ টাকার, ভিএফএস থ্রেড ডায়িং লিমিটেডের ২২ কোটি ৭১ লাখ ৬ হাজার টাকার, গ্রামীণফোন লিমিটেডের ২১ কোটি ৫৮ লাখ ৭৩ হাজার টাকার, গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ১৬ কোটি ৩ লাখ ৫৮ হাজার টাকার, বিকন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ১৪ কোটি ৪৪ লাখ ৮৬ হাজার টাকার, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ১২ কোটি ৮ লাখ ১৭ হাজার টাকার এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ১১ কোটি ৬৬ লাখ ৮১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে ছিল প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৭ শতাংশ, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ, রতনপুর স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ, আমান কটন ফাইব্রাস লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৪ শতাংশ, নিটল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের ৯ দশমিক ৭৫ শতাংশ, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৬৫ শতাংশ এবং প্রাইম ব্যাংক ফার্স্ট আইসিবি এএমসিএল মিউচুয়াল ফান্ডের ৯ দশমিক ২৫ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে ৯ দশমিক ৩২ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে উঠে আসে অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। ঢাকা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের দর ৯ দশমিক ০৫ শতাংশ, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের দর ৭ দশমিক ৮৪ শতাংশ, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৬ দশমিক ৫২ শতাংশ, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৬ দশমিক ২২ শতাংশ, ফার্স্ট ফাইন্যান্স লিমিটেডের ৫ দশমিক ৭৬ শতাংশ, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৫ দশমিক ৫২ শতাংশ, এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৫ দশমিক ২০ শতাংশ এবং বে-লিজিং অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ৫ শতাংশ শেয়ারদর কমেছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ১০১ দশমিক ৮৯ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৩৭ শতাংশ বেড়ে ৭ হাজার ৫১২ দশমিক ৭২ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৭১ দশমিক ৬২ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৪০ শতাংশ বেড়ে ১২ হাজার ৪০১ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ২৬৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ১৫৯টির, কমেছে ৫০টির এবং ৫৬টির দর অপরিবর্তিত ছিল।

সিএসইতে এদিন লেনদেনের শীর্ষে ছিল বিকন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। কোম্পানিটির ১২ কোটি ৪৯ লাখ ২০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপরের অবস্থানে থাকা ম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিটেডের ৭ কোটি ৬ লাখ ১০ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের ৬ কোটি ৪৪ লাখ ৮০ হাজার টাকার, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের চার কোটি ৫ লাখ ৪০ হাজার টাকার, বেক্সিমকো লিমিটেডের এক কোটি ৬৮ লাখ ৩০ হাজার টাকার, যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের এক কোটি ৬২ লাখ ৫০ হাজার টাকার, এসএস স্টিল মিলস লিমিটেডের ৬৩ লাখ ১০ হাজার, জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৫৬ লাখ ৯০ হাজার টাকার, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৫৪ লাখ ১০ হাজার টাকার এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানি লিমিটেডের ৪৯ লাখ ৭০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..