প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

উভয় পুঁজিবাজারে সূচক বেড়েছে

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস গতকাল রোববার দেশের উভয় পুঁজিবাজারেই সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ শেয়ারের দর বেড়েছে। তবে প্রধান বাজারে সার্বিক সূচক বাড়লেও দিনটিতে শরিয়াহ ও বাছাই সূচকটি কিছুটা কমেছে। গতকাল দেশের দুই বাজারেই আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কিছুটা কমেছে। বেশ কিছু কোম্পানির মুনাফা তোলার প্রবণতার কারণেই দিনটিতে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ কিছুটা কমেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

গতকালের বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ডিএসইতে ৯৭৫ কোটি এক লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের তুলনায় ৪৮ কোটি তিন লাখ টাকা কম। আগের দিন এ বাজারে এক হাজার ২৩ কোটি পাঁচ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩২৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৬টির, কমেছে ১৩৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৩টির শেয়ারদর।

এদিকে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৯৩৮ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৬৯ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৮০৩ পয়েন্টে। ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ কোম্পানিগুলো হলো  বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, সামিট পোর্ট অ্যালায়েন্স, ইফাদ অটোস, এ্যাপোলো ইস্পাত, আরএসআরএম স্টিল, অ্যাকটিভ ফাইন, গোল্ডেন হার্ভেস্ট, কনফিডেন্ট সিমেন্ট ও নাভানা সিএনজি। আর দরবৃদ্ধির শীর্ষ কোম্পানিগুলো হলো নাভানা সিএনজি, সামিট পোর্ট অ্যালায়েন্স, এইচআর টেক্সটাইল, মিরাকল ইন্ডাস্ট্রিজ, আরএসআরএম স্টিল, ইউনিয়ন ক্যাপিটাল, এ্যাপোলো ইস্পাত, কেডিএস অ্যাকসেসরিজ, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং ও শাহজিবাজার পাওয়ার। অন্যদিকে গতকাল দর হারানোর শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো মিথুন নিটিং, আইডিএলসি, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল, আনলিমা ইয়ার্ন, যমুনা অয়েল, আরএন স্পিনিং, ফ্যামিলিটেক্স, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড ও রেনউইক যজ্ঞেশ্বর। ডিএসইর খাতভিত্তিক লেনদেন বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইতে খাতভিত্তিক লেনদেনে এগিয়ে ছিল প্রকৌশল খাতটি। সারা দিনে খাতটির মোট লেনদেন হয় ২২২ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ২২ দশমিক ৩৮ শতাংশ। দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি। এদিন খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১৩১ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১৩.২৩ ভাগ। তৃতীয় অবস্থানে ছিল বস্ত্র খাতের কোম্পানি। দিনটিতে খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ ১০২ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১০.২৭ ভাগ। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৪ কোটি টাকার শেয়ার। সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৭৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ১৭৩ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৫৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৭টির, কমেছে ১০১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৭টির। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষ থাকা ১০টি কোম্পানি ছিল লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস, আরএসআরএম স্টিল, ফরচুন সুজ, এ্যাপোলো ইস্পাত, সামিট পোর্ট অ্যালায়েন্স, কেডিএস অ্যাকসেসরিজ, ইস্টার্ন হাউজিং, বেক্সিমকো ও বিডি থাই। অন্যদিকে এখানে দর হারানোর শীর্ষ থাকা কোম্পানিগুলো হচ্ছে মিথুন নিটিং, আইডিএলসি, ফাইন ফুড, হা-ওয়েল টেক্সটাইল, ফিনিক্স ইন্স্যুরেন্স, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল, আনলিমা ইয়াং, যমুনা অয়েল ও ফ্যামিলিটেক্স।