কোম্পানি সংবাদ

উভয় বাজারে সূচক শেয়ারদর ও লেনদেন সামান্য ইতিবাচক

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগের কার্যদিবসের ধারাবাহিকতায় গতকাল উভয় পুঁজিবাজারে সূচকের উত্থান হয়। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক ও লেনদেনে সামান্য ইতিবাচক পরিবর্তন হয়েছে। দর বেড়েছে ৫৫ শতাংশ কোম্পানির। ডিএসইতে লেনদেনের শুরুতে সূচক প্রায় ২০ পয়েন্ট বেড়ে যায়। এরপর উঠানামা করতে করতে সোয়া ১১টার দিকে বিক্রির চাপ বেড়ে সূচকে পতন নেমে আসে। সাড়ে ১২টার দিকে কেনার চাপ বাড়লেও বিক্রির চাপ থাকায় বারবার ওঠানামা করে শেষ পর্যন্ত আট পয়েন্ট ইতিবাচক ছিল ডিএসইএক্স সূচক। বাকি দুই সূচকও বেড়েছে। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক, শেয়ারদর ও লেনদেনে একই চিত্র দেখা গেছে।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আট দশমিক ৬৮ পয়েন্ট বা দশমিক ১৬ শতাংশ বেড়ে পাঁচ হাজার ১৩৩ দশমিক ১৩ পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক এক দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বা দশমিক ১৩ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ১৭৬ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস ৩০ সূচক দশমিক ৫৪ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য দুই শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৮৩০ দশমিক শূন্য দুই পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন তিন লাখ ৮১ হাজার ৭৬৯ কোটি ৫৭ লাখ ১০ হাজার ২৩ টাকা হয়। ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ৩০৯ কোটি ৬০ লাখ ১৭ হাজার ৭৭২ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ২৭১ কোটি ৭৬ লাখ ১৬ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৩৭ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। এদিন ১২ কোটি ৬৬ লাখ ৯ হাজার ৭৫৮টি শেয়ার ৯৫ হাজার ৮২৮ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫২ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৯৬টির, কমেছে ১১৮টির ও অপরিবর্তিত ছিল ৩৮টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ফরচুন সুজ। কোম্পানিটির ২৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ১০ পয়সা। ইউনাইটেড পাওয়ারের ৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে চার টাকা ৪০ পয়সা। তৃতীয় অবস্থানে থাকা সিলকো ফার্মার প্রায় আট কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে দুই টাকা ১০ পয়সা। গ্রামীণফোনের সাড়ে সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর কমেছে দুই টাকা ২০ পয়সা। এরপরের অবস্থানে থাকা গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের সাড়ে সাত কোটি টাকা, ন্যাশনাল পলিমারের সাড়ে ছয় কোটি টাকা, জেএমআই সিরিঞ্জের সোয়া ছয় কোটি টাকা, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের ছয় কোটি টাকা, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের প্রায় ছয় কোটি টাকা, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স। সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের দর ৯ দশমিক ৮৯ শতাংশ, ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্সড ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৬৩ শতাংশ। এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৪১ শতাংশ, সিলকো ফার্মার দর ৯ দশমিক ২৩ শতাংশ, ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিংয়ের দর ৯ দশমিক ১৮ শতাংশ, এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ডের দর ৯ দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ, ভ্যানগার্ড এএমএলবিডি মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের দর আট দশমিক ৯৭ শতাংশ, এবিবি ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর আট দশমিক ৩৩ শতাংশ, সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালসের দর আট দশমিক ২০ শতাংশ বেড়েছে।
অন্যদিকে আট দশমিক ৫৭ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি। ফার্স্ট ফাইন্যান্সের দর ছয় দশমিক ৬৬ শতাংশ কমেছে। এছাড়া ইউনাইটেড এয়ারের দর পাঁচ দশমিক ২৬ শতাংশ, ফারইস্ট ফাইন্যান্সের দর পাঁচ শতাংশ, সি পার্ল রিসোর্টের দর চার দশমিক ৩৯ শতাংশ, বেক্সিমকো সিনথেটিকসের দর চার দশমিক ১৬ শতাংশ, সিএনএ টেক্সের দর চার শতাংশ, আলহাজ্জ টেক্সটাইলের দর তিন দশমিক ৭৪ শতাংশ, ইমাম বাটনের দর তিন দশমিক ৭৩ শতাংশ ও এ্যাপোলো ইস্পাতের দর তিন দশমিক ৪৪ শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ২২ দশমিক ১১ পয়েন্ট বা দশমিক ২৩ শতাংশ বেড়ে ৯ হাজার ৫৫৯ দশমিক ৪২ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৮ দশমিক ১৩ পয়েন্ট বা দশমিক ১৭ শতাংশ বেড়ে ১৫ হাজার ৭৩০ দশমিক ৫৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৭৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৫১টির, কমেছে ৯৮টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৪টির দর।
সিএসইতে এদিন ৩০ কোটি ১৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৩০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ১৬ কোটি ৪৪ লাখ ছয় হাজার ৩৫৯ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে আইএফআইসি ব্যাংক। কোম্পানিটির ১৪ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপর ওরিয়ন ফার্মার এক কোটি ৩৯ লাখ টাকার, আরএকে সিরামিকসের এক কোটি ৩৭ লাখ টাকার, সি পার্ল রিসোর্টের এক কোটি ৩৩ লাখ টাকার, ডরিন পাওয়ারের ৬৯ লাখ টাকার, সিলকো ফার্মার ৫০ লাখ টাকার, রানার অটোর ৪৮ লাখ টাকার, ফরচুন শুজের ৪০ লাখ টাকার, বিজিআইসির ৩৯ লাখ টাকার, গ্রামীণফোনের ৩৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..