কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

উৎপাদন বাড়াতে ১৭ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে সিনোবাংলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিবিধ খাতের কোম্পানি সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রায় ১৭ কোটি টাকা বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ প্রতি মাসে উৎপাদন সক্ষমতা ১৫০ মেট্রিক টন বাড়াবে। এ কারণে কোম্পানিটির কারখানায় নতুন কিছু যন্ত্রপাতি সংযোজন করতে হবে যার মধ্যে টেপ এক্সটেনশন লাইন লুম মেশিন, নিডল লুমস, ফিলার কর্ড, ওয়াটার চিলার মেশিন ও কাঁচামাল রাখার জন্য একটি ওয়্যারহাউস নির্মাণ করবে। এ জন্য ১৬ কোটি ৮১ লাখ পাঁচ হাজার টাকা বিনিয়োগ করা লাগবে। কোম্পানিটির এ প্রকল্পে কিছু নিজস্ব তহবিল থেকে অর্থায়নের পাশাপাশি ব্যাংক ঋণের মাধ্যমে অর্থায়ন করা হবে।

এদিকে গতকাল ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর চার দশমিক ৮৯ শতাংশ বা দুই টাকা ৫০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৫৩ টাকা ৬০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৫৩ টাকা ৬০ পয়সা। দিনজুড়ে ৯ লাখ ৬৯ হাজার ৩৬৬ শেয়ার এক হাজার ১০৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর পাঁচ কোটি ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৫১ টাকা ৪০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৫৪ টাকা ৮০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ৪১ টাকা থেকে ৬৮ টাকা ৭০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।

২০২০ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি পাঁচ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ৩১ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকা ৬৯ পয়সা।

আর ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ৭৩ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকা ৩৮ পয়সা। ১৯৯৯ সালে তালিকাভুক্ত হয় ‘এ’ ক্যাটেগরির এ কোম্পানিটি। কোম্পানির ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৯ কোটি ৯৯ লাখ ৭০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ২১ কোটি ৩৭ লাখ টাকা।

কোম্পানির মোট এক কোটি ৯৯ লাখ ৯৬ হাজার ৬০০ শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের ৩০ দশমিক ৬১ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক তিন দশমিক ৮৮ শতাংশ ও বাকি ৬৫ দশমিক ৫১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..