সুস্বাস্থ্য

এইচএসবিসি ওয়াটার প্রোগ্রামের # অ্যাকশনফরওয়াশ

# অ্যাকশনফরওয়াশ। ওয়াটার এইড এবং এইচএসবিসির যৌথ অংশীদারিত্ব ও এইচএসবিসি ওয়াটার প্রোগ্রামের অংশ এটি। সম্প্রতি রাজধানীর ইএমকে সেন্টারে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় আলোকচিত্র ও চলচ্চিত্রবিষয়ক এ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এ পর্বে অংশ নেয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘টিম ভিউফাইন্ডার’ ও ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টসের (ইউল্যাব) ‘টিম প্রত্যাশা’। এতে বিজয়ী হয়েছে ‘টিম ভিউফাইন্ডার’।

জলবায়ু ঝুঁকিতে থাকা অঞ্চলে এইচএসবিসি ওয়াটার প্রোগ্রাম মাঠ পর্যায়ে কেমন প্রভাব রাখছে তা সাধারণ জনগণের মাঝে আসার চেষ্টায় ২০১৯ সালের নভেম্বরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ইউল্যাব শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ আলোকচিত্র ও চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা শুরু হয়। পাঁচটি দল প্রাথমিক পর্যায়ে নির্বাচিত হয়। এর মধ্যে দল গঠন, উন্নয়ন সংক্রান্ত বিষয়ের ওপর চলচ্চিত্র নির্মাণের পূর্ব অভিজ্ঞতা ও গল্পের ওপর ভিত্তি করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন, ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের একটি ও ইউল্যাবের একটি দল চূড়ান্ত পর্যায়ে অংশ নেওয়ার সুযোগ পায়। এক সপ্তাহ মাঠ পর্যায়ে কাজের সরাসরি অভিজ্ঞতা অর্জনের মাধ্যমে দল দুটি তাদের চলচ্চিত্র নির্মাণ করে। সাত সদস্যের বিচারকের সামনে চলচ্চিত্র দুটি প্রদর্শিত হয়।

টিম ভিউফাইন্ডার ‘শ্বাসমূল’ নামে একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করে। তাদের প্রামাণ্যচিত্রে উঠে এসেছে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার মুন্ডা সম্প্রদায়ের মানুষের সুপেয় পানি, স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্যবিধি-সংক্রান্ত নানা সমস্যা। এসব সমস্যা সমাধানে এইচএসবিসি ওয়াটার প্রোগ্রাম তাদের জীবনধারায় যেসব পরিবর্তন এনেছে, তার চিত্র। ‘টিম প্রত্যাশা’র তৈরি প্রামাণ্যচিত্রে উঠে আসে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রভাবের চিত্র।

তরুণদের নিয়ে ওয়াটারএইডের চলমান কর্মকাণ্ডের মধ্যে এ উদ্যোগটি অন্যতম। ওয়াশ (পানি, স্বাস্থ্যবিধি ও স্যানিটেশন) নিয়ে নানা সমস্যা সমাধানে বেশ কার্যকর ভূমিকা রাখার সম্ভাবনা রয়েছে তরুণদের। টেকসই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কার্যকর ও ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে তরুণদের অংশ নেওয়া ও সক্রিয় রাখতে সহায়তা করে ‘অ্যাকশন ফর ওয়াশ’-এর মতো উদ্যোগ।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..