স্পোর্টস

একই দিনে সিনেপ্লেক্সে হলিউডের দুই সিনেমা

শোবিজ ডেস্ক: রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সে আজ মুক্তি পাচ্ছে হলিউডের দুই সিনেমা। অ্যাডভেঞ্চারধর্মী দ্য কল অব দ্য ওয়াইল্ড ও হরর ঘরানার ব্রামস: দ্য বয় ২। দ্য কল অব দ্য ওয়াইল্ড সিনেমা পরিচালনা করেছেন ক্রিস স্যান্ডার্স। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন হ্যারিসন ফোর্ড, ড্যান স্টিভেনস, ক্যারেন গিলান, ব্র্যাডলি হুইটফোর্ড প্রমুখ। প্রত্যেক প্রাণীর মধ্যেই ভালো-মন্দ দুটি সত্ত্বা বিদ্যমান। এছাড়া সব প্রাণীর মধ্যেই স্বাধীনতা লাভ করার একটা চেতনা থাকে। এমনই কিছু বিষয়বস্তুর আঙ্গিকে বিখ্যাত আমেরিকান ঔপন্যাসিক জ্যাক লন্ডন রচনা করেন ‘দ্য কল অব দ্য ওয়াইল্ড’। তখন সবেমাত্র বিংশ শতাব্দী শুরু হয়েছে। স্বর্ণ সন্ধানী ও অ্যাডভেঞ্চারপ্রিয় মানুষরা বিশ্বে অদেখা প্রান্ত ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তখন যান্ত্রিক যোগাযোগব্যবস্থা তেমন ছিল না। বন্য পরিবেশে যোগাযোগব্যবস্থার একমাত্র অবলম্বন ছিল কুকুরের টানা সেøজ ও ঠেলাগাড়ি। এ সিনেমার  কাহিনি মূলত ‘বাক’ নামে একটি কুকুরের জীবনকে ঘিরে। অন্যদিকে ব্রামস: দ্য বয় ২ সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন উইলিয়াম ব্রেন্ট বেল। চিত্রনাট্যকার স্ট্যাসি মেনিয়ার। এতে অভিনয় করেছেন কেটি হোমস, ক্রিস্টোফার কনভেরি, রাফ ইনেসন প্রমুখ। নিজের দুঃসহ অতীত ভুলতে চান মার্কিন তরুণী গ্রেটা। তাই নতুন চাকরি নিয়ে চলে যান ইংল্যান্ডের ছোট্ট এক গ্রামে। বিত্তশালী এক দম্পতি দীর্ঘ ছুটি কাটাতে যাবে। এ সময় তাদের আট বছর বয়সী ছেলেকে দেখাশোনাই গ্রেটার দায়িত্ব। কিন্তু প্রত্যন্ত গ্রামে গিয়ে তিনি বুঝতে পারেন, কোথাও যেন একটা গোলমাল আছে। তার নিয়োগদাতা হিলশায়ার প্রবীণ দম্পতি। ছেলে ব্রামসের যতœ কীভাবে নিতে হবে, তা নিয়ে কঠোর নির্দেশনার একটা তালিকা তার হাতে ধরিয়ে দেন। এসব নিয়ম না মানলে পরিণতি ভয়ংকর হতে পারে। ব্রামস আসলে ছোট্ট শিশু নয়, একটি চীনামাটির পুতুল। কিন্তু হিলশায়ার দম্পতি পুতুলটি নিজের ছেলের মতোই যতœ করে ও ভালোবাসে। যখন এ প্রবীণ দম্পতি ছুটিতে চলে যায়। গ্রেটা ওই ভূতুড়ে বাড়িতে বিচ্ছিন্ন ও নিঃসঙ্গ হয়ে পড়েন। তিনি প্রতিবার একেকটি নিয়ম ভঙ্গ করার সঙ্গে সঙ্গে বাড়িতে অদ্ভুত কিছু ব্যাপার ঘটে। আর পুতুলটিকে ঠিক যে জায়গায় রাখেন, সেখান থেকে সরে অন্য জায়গায় চলে যায়। তাহলে কি পুতুলটি জীবিত? এমন গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে সিনেমাটির কাহিনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..