Print Date & Time : 6 December 2020 Sunday 4:31 am

একদিনে সর্বোচ্চ ১৮৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু ২০ জন

প্রকাশ: May 23, 2020 সময়- 02:50 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২০ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে প্রাণঘাতি এই ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৪৫২ জনে দাঁড়াল। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ১ হাজার ৮৭৩ জনের শরীরে শনাক্ত হয়েছে ভাইরাসটি। এটি একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। এতে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩২ হাজার ৭৮ জনে।

আজ শনিবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। বুলেটিন উপস্থাপন করেন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি জানান, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও নয় হাজার ৯৭৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় আগের কিছু মিলিয়ে ১০ হাজার ৮৩৪টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো দুই লাখ ৩৪ হাজার ৬৭৫টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় আরও এক হাজার ৮৭৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩২ হাজার ৭৮ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ২০ জন। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৪৫২ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হ‌য়েছেন আরও ২৯৬ জন। এ নি‌য়ে সুস্থ হ‌য়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ছয় হাজার ৪৮৬ জ‌নে।

বুলেটিনে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাইকে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ-নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয়।
দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ১৮ মার্চ।

করোনাভাইরাস সংক্রান্ত যেকোনো তথ্যের জন্য সরকার ইতোমধ্যেই একটি বিশেষ ওয়েবসাইট (www.corona.gov.bd) চালু করেছে।

এদিকে, ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে, শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা পর্যন্ত বৈশ্বিক এ মহামারিতে সারা পৃথিবীতে ৫৩ লাখ ১৮ হাজার ৫০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে ২১ লাখ ৬৯ হাজার ১৭৯ জন সুস্থ হয়ে উঠলেও প্রাণ গেছে ৩ লাখ ৪০ হাজার ২৩০ জনের।

সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি ঘটেছে যেসব দেশে:

যুক্তরাষ্ট্র: ৯৭ হাজার ৬৫৫ জন।
যুক্তরাজ্য: ৩৬ হাজার ৩৯৩ জন।
ইতালি: ৩২ হাজার ৬১৬ জন।
ফ্রান্স: ২৮ হাজার ২৮৯ জন।
স্পেন: ২৮ হাজার ৬২৮ জন।
ব্রাজিল: ২১ হাজার ১১৬ জন।
বেলজিয়াম: ৯ হাজার ২১২ জন।
জার্মানি: ৮ হাজার ৩৫২ জন।
ইরান: ৭ হাজার ৩০০ জন।
মেক্সিকো: ৬ হাজার ৯৮৯ জন।