প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

একুশে বই মেলায় হাসিন জাহান এর ‘মেয়ে তুমি তোমার মতো হও’

নিজস্ব প্রতিবেদক: বৈশ্বয়িক আধুনিকায়নে সারা বিশ্বে এগিয়ে যাচ্ছে নারী শক্তিকে কাজে লাগিয়ে। গত দুই-তিন দশকে বাংলাদেশের নারীর অগ্রযাত্রা গর্ব করার মতো। তথাপি বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানেই ‘ডিসিশন মেকিং’ পদে নারীর সংখ্যা অপ্রতুল। কর্মক্ষেত্রে নারীদের সমস্যা অনেকাংশেই পুরুষদের চেয়ে আলাদা। সিদ্ধান্তগ্রহণ প্রক্রিয়ায় মেয়েদের অংশগ্রহণ যেহেতু কম, সেজন্য অনেক ক্ষেত্রেই সিদ্ধান্ত মেয়েদের অনুকূলে যায় না। ফলে তারাই বেশি ভুক্তভোগী হয়। পাশাপাশি তারা একইসাথে পারিবারিক, সামাজিক ও প্রাতিষ্ঠানিক চাহিদা পূরণ করতে গিয়ে হিমশিম খায়। ‘মেয়ে তুমি তোমার মতো হও’ বইটি নারী কীভাবে নিজেকে তৈরি করবেন সে-সম্পর্কে বাস্তবসম্মত পরামর্শ তুলে ধরা হয়েছে।

লেখক হাসিন জাহান একজন উন্নয়ন পেশাজীবী। তিনি কর্মজীবন শুরু করেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে।এরপর তিনি ওয়ার্ল্ড ব্যাংক, ডানিডা-সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন। বর্তমানে তিনি আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ওয়াটারএইড বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর হিসেবে কর্মরত।

হাসিন বাংলাদেশে নারীদের আর্থসামাজিক উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নে হাসিন জাহান সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছেন। তিনি বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনের একজন অগ্রগণ্য নেতৃত্বদানকারী। গত বছর তার প্রথমগ্রন্থ ‘হাসিনের খেরোখাতা’ পাঠকদের কাছে জনপ্রিয়তা লাভ করে।

লেখক বইটি সম্পর্কে বলেন, এই বইটি একজন নারী পেশাজীবী জীবনের প্রতি পদক্ষেপে অর্থাৎ ছাত্রজীবন থেকে শুরু করে রিটায়ারমেন্ট পর্যন্ত কীভাবে আরও বেশি সাফল্য অর্জন করতে পারবেন, সে বিষয়ে পথনির্দেশনা রয়েছে। 

বইটি নারীদের পেশাজীবনে সফলতা অর্জনে কিছুমাত্র ভূমিকা রাখলে তার সামগ্রিক ফলাফল হিসেবে সমাজে বহু ইতিবাচক পরিবর্তন আসতে পারে। কর্মক্ষেত্রে সফলতা পেতে হলে তারা ব্যক্তিজীবনকে কীভাবে সাজাবেন, নিজেকে কীভাবে আত্মবিশ্বাসী এবং অধিকতর যোগ্য করে তৈরি করবেন, তার মূলমন্ত্র নিয়ে লেখা হয়েছে এই বই।

বইটি শুধু নারীদের জন্য নয়, কর্মক্ষেত্রে নারীদের এগিয়ে নিয়ে যেতে পুরষদের কিরূপ ভূমিকা থাকা প্রয়োজন সে বিষয়েও জানা পুরুষদের জানা সম্ভব হবে। আশা করি বইটি নারী-পুরুষ নির্বিশেষে পাঠকপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হবে।