স্পোর্টস

এখন থেকে মিসবাহ শুধু পাকিস্তানের হেড কোচ

ক্রীড়া ডেস্ক: গত বছরের সেপ্টেম্বরে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ ও প্রধান নির্বাচকের দুই দায়িত্ব একসঙ্গে নিয়েছিলেন মিসবাহ-উল-হক। এজন্য তখন থেকেই এ তারকা পড়েছিলেন সমালোচনার।

গত জুনে ইংল্যান্ড সফরে ব্যর্থতার পরই পাকিস্তানের দৈনিক ডন জানিয়েছিল, মিসবাহর পারফরম্যান্সে কিছুটা অসন্তুষ্ট পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। সংস্থাটি তাকে প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিতে চায়। তবে সেটা করতে হয়নি পিসিবির। বুধবার নিজেই সংবাদ সম্মেলনে মিসবাহ জানিয়েছেন, প্রধান নির্বাচকের পদ ছাড়লেন।

দুই দায়িত্ব গত এক বছরের বেশি সময় পালন করার পরই হঠাৎ করেই মিসবাহর মনে হয়েছে চাপ হয়ে যাচ্ছে। তাই প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে বুধবার পদত্যাগ করলেন সাবেক এ অধিনায়ক। তবে দেশটির হেড কোচের দায়িত্ব ঠিকই পালন করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। কিন্তু কেন এই সিদ্ধান্ত? পিসিবির নতুন আচরণবিধি বা কোড অব কন্ডাক্টের কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে মিসবাহকে।

ক্রিকইনফো জানাচ্ছে, নতুন আচরণবিধিতে স্বার্থের সংঘাত ঘটায়, এমন কিছু থাকতে পারবে না। মিসবাহর ক্ষেত্রে পাকিস্তানের ছেলেদের দলের প্রধান কোচ হওয়ার পাশাপাশি প্রধান নির্বাচক হওয়াও স্বার্থের সংঘাতের সংজ্ঞাতেই পড়ে। মিসবাহ অবশ্য আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছেন, কোচিংয়ে আরও মনোযোগ দিতেই প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।

গত বছরের ৪ সেপ্টেম্বর একক কর্তৃত্ব দিয়েই মিসবাহকে এনেছিল পিসিবি। এরপর থেকে পাকিস্তানের পারফরম্যান্স অবশ্য ভালো-মন্দের মিশেলেই কেটেছে। ৯টি টেস্টের মধ্যে পাকিস্তান জিতেছে দুটিতে, হেরেছে তিনটি, ড্র তিনটি। বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি টেস্ট বাতিল হয়েছে করোনাভাইরাসের কারণে। ওয়ানডেতে অবশ্য শতভাগ সাফল্য। টি-টোয়েন্টিতে অবশ্য এখন পর্যন্ত ১৪ ম্যাচের যে ৯টি ফল দেখেছে, তার মধ্যে তিনটিতে জিতেছে পাকিস্তান, হেরেছে ছয়টিতে। মূলত দলটির সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের কারণে মিসবাহর একসঙ্গে দুই দায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল।

তাই অনেকেই চেয়েছিলেনে যেকোন একটি পদ থেকে সরে দাঁড়াক এ তারকা। শেষ পর্যন্ত বুধবার সেটাই করলেন তিনি। এরফলে নিশ্চয় পিসিবিও খুশি হয়েছে। মিসবাহ পদত্যাগ করায় অনেকে ভাবছেন পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচক হবেন সাবেক পেসার শোয়েব আখতার। যদিও এ ব্যাপারে এখনও মুখ খোলেনি পিসিবি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..