Print Date & Time : 17 April 2021 Saturday 1:19 am

এনআই খানের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা স্থগিত

প্রকাশ: January 24, 2021 সময়- 11:05 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক: এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার (পিকে হালদার) হালদারের সঙ্গে প্রতারণায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাবেক সচিব এনআই খানের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দেয়া হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। গতকাল হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. নূরুজ্জামানের চেম্বার আদালত এ আদেশ দেন।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মেহেদি হাসান চৌধুরী।

এর আগে ভুক্তভোগীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পিকে হালদারের মা লীলাবতী হালদারসহ ২৫ জনের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ওই ২৫ জনকে প্রয়োজনে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবে বলেও আদেশ দেন আদালত। গত ৫ জানুয়ারি বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

বিদেশ গমনে যাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়, তারা হলেন প্রতি সপ্তাহে পিকে হালদারের সঙ্গে যোগাযোগকারী ১. হারুনুর রশিদ (ফার্স্ট ফাইন্যান্স), ২. উজ্জ্বল কুমার নন্দী, ৩. সামি হুদা, ৪. অমিতাভ অধিকারী, ৫. অবন্তিকা বড়াল, ৬. মিস শামীমা (ইন্টারন্যাশনাল লিজিং), ৭. রুনাই (ইন্টারন্যাশনাল লিজিং), ৮. আই খান (ইন্টারন্যাশনাল লিজিং), ৯. সুকুমার মৃধা (ইনকাম ট্যাক্স আইনজীবী), ১০. অনিন্দিতা মৃধা, ১১. তপন দে, ১২. স্বপন কুমার মিস্ত্রি, ১৩. অভিজিৎ চৌধুরী, ১৪. রাজিব সোম, ১৫. ইরফান উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী (ব্যাংক এশিয়ার সাবেক এমডি), ১৬. অঞ্জন মোহন রায়, ১৭. নঙ্গ চৌ মং, ১৮. নিজামুল আহসান, ১৯. মানিক লাল সমাদ্দার, ২০. সোহেল সামস। এছাড়া পিকে হালদারকে বিভিন্নভাবে তথ্য দিয়ে সহযোগিতাকারী ১.  মাহবুব মুসা, ২. একিও সিদ্দিকী, ৩. মোয়াজ্জেম হোসেন ৪. পিকে হালদারের মা লীলাবতী হালদার এবং ৫. বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এসকে শুরকেও বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত।

পরে হাইকোর্টের ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে এনআই খানের পক্ষে আপিল আবেদন করা হয়। সেই আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত আদেশ দিলেন। এ আদেশের ফলে তার বিদেশ গমনে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

প্রসঙ্গত, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকেই এক হাজার ৫০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে পিকে হালদারের বিরুদ্ধে। এছাড়া সব মিলিয়ে প্রায় তিন হাজার ৫০০ কোটি টাকা তিনি আত্মসাৎ করেছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে একের পর এক সংবাদ প্রকাশিত হয়। এসময় গোপনে কানাডায় পাড়ি জমান তিনি।